সিলেট ও ফুরি কও আমারে...গানটির কারিগর নবীগঞ্জের রাহুল

✍  নিজস্ব প্রতিবেদক: Oct 22, 2019

গানটিতে মুলত সিলেটি ছেলেদের প্রতি  মেয়েদের ভাল লাগা বা ভালবাসার পেছনে  মূখ্য যে  কারণগুলো কাজ করে সেই বিষয়টাকেই সামনে আনার চেষ্টা করেছি, এভাবেই  নিজের অনুভূতি বলে যাচ্ছিলেন
‘ও ফুরি কউ আমারে ভালা ফাউ নি
বাড়ি আমার সিলেট বাবা লন্ডনি’
ভাইরাল হওয়া সিলেটের এই গানটির রচয়িতা রাহুল আচার্য। হবিগঞ্জ জেলার নবীগঞ্জে জন্ম নেওয়া রাহুল বর্তমানে সিলেটের মুরারিচাঁদ (এমসি) কলেজ অর্থনীতি বিভাগের মাস্টার্স শেষবর্ষে পড়াশোনা করছেন।

গত কিছুদিন থেকে সিলেটসহ প্রায় সারাদেশে তুমুল আলোড়ন সৃষ্টি করা গানটির রচয়িতা রাহুল বলেন,  গানটি মূলত সিলেটের আঞ্চলিক ভাষায় লেখা একটি প্রপোজাল সং।

ইউটিউব, ফেসবুকসহ বিভিন্ন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হওয়া গানটি, ঢাকার জনপ্রিয় ব্যান্ড দল ‘ব্যান্ডগুঁড়ি’ থেকে প্রকাশিত হয়। ২০১৬ সালে জন্ম নেয়া ব্যান্ড দলটি ব্যতিক্রমী কিছু গানের দ্বারা অল্প সময়ের মধ্যেই  দেশ-বিদেশে ব্যাপক জনপ্রিয়তা অর্জন করেছে। ব্যান্ড দলটির সিইও আকাশ ইসলাম একাধারে শিল্পী ও সুরকারও।

গানটির মুল শিল্পী সৌরভ  রাজধানীর মতিঝিলের বাসিন্দা । বর্তমানে সে মতিঝিল সরকারি আইডিয়াল স্কুলের সপ্তম শ্রেণিতে লেখাপড়া  করছে।

ব্যান্ডগুড়ির নিয়মিত গান লেখক রাহুল বলেন, ছোটবেলা থেকেই গান বা কবিতা লেখতে ভাল লাগতো। গত দুবছর ধরে ব্যান্ড দলটির সাথে আছি। রাহুল বলেন, সিলেটি গান লিখতে অন্যরকম এক ভাললাগা কাজ করে। আধ্যাত্মিক নগরীর গানগুলোতে আলাদা একটা রসাত্মকবোধ কাজ করে। সিলেটি গানের প্রেম, সরলতা, সুর, তাল ও লয়ের দোলা বুকের ভেতর এক অন্য রকম এক ভালো লাগার সৃষ্টি  করে। রাহুল বলেন, সিলেটের আঞ্চলিক গানগুলোতে ফুটে উঠে বাস্তবতা। যেকারণে গানগুলো শুনতেও  চমৎকার লাগে

গত বৃহস্পতিবার  (২৭ জুন)  রাত ৯টয় ব্যান্ড গুঁড়ির ইউটিউব চ্যানেলে প্রকাশ হওয়া এমসি কলেজের শিক্ষার্থী রাহুলের লেখা এই গানটি ইতিমধ্যেই ১৭ লাখেরও বেশি ভিউয়ার অতিক্রম করেছে  ।

এছাড়া ও এমসির এই শিক্ষার্থীর লেখা- কালা মেয়েই ভালা, সুন্দরী খাওয়াইলা টক দই, মাইয়া করলি দিওয়ানা, পরীস্থানের পরী, কন্যা লাজে মরে যায়সহ বেশ কিছু গান বিভিন্ন সময়ে ব্যাপক আলোড়ন সৃষ্টি করেছে। গত বছর সিলেটি ভার্সনে লেখা তার ‘অপরাধী’ গানটি ব্যাপকভাবে ভাইরাল হয়েছিল।

Login to post comments
  1. LATEST NEWS
  2. Trending
  3. Most Popular