Login to your account

Username *
Password *
Remember Me

Create an account

Fields marked with an asterisk (*) are required.
Name *
Username *
Password *
Verify password *
Email *
Verify email *
Captcha *
Reload Captcha

দুই কাউন্সিলরের বিরুদ্ধে পৃথক মামলার চার্জশিট রাজীব দখলদার, মঞ্জু চিহ্নিত চাঁদাবাজ Featured

Written by  Online Desk Nov 29, 2019

ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের (ডিএনসিসি) ৩৩ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর তারেকুজ্জামান রাজীব অবৈধ অস্ত্র দেখিয়ে ভূমিদস্যুতা, চাঁদাবাজি ও দখলদারি কায়েম করেছিলেন মোহাম্মদপুর ও আদাবর থানা এলাকায়। আর ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের (ডিএসসিসি) ৩৯ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর ময়নুল হক মঞ্জু চিহ্নিত চাঁদাবাজ। তাঁদের বিরুদ্ধে পৃথক অস্ত্র মামলার অভিযোগপত্রে (চার্জশিট) এমন তথ্য উল্লেখ করা হয়েছে।

ঢাকার মুখ্য মহানগর হাকিম আদালতে রাজীবের বিরুদ্ধে গত সোমবার অভিযোগপত্র দাখিল করার পর অস্ত্র মামলাটি বিচারের জন্য প্রস্তুত হয়েছে। মুখ্য মহানগর হাকিম আদালত মামলার নথি এখন ঢাকার মহানগর দায়রা জজ ও জ্যেষ্ঠ বিশেষ ট্রাইব্যুনালে পাঠাবেন।

কাউন্সিলর রাজীবের অস্ত্র মামলাটি তদন্ত করেন র‌্যাব-২-এর উপপরিদর্শক (এসআই) প্রণয় কুমার প্রামাণিক। চার্জশিটে বলা হয়েছে, প্রকাশ্য তদন্ত, সাক্ষীদের জিজ্ঞাসাবাদ ও ঘটনার পারিপার্শ্বিকতায় রাজীবের বিরুদ্ধে অবৈধ অস্ত্র ও গুলি দখলে রাখার অভিযোগ প্রাথমিকভাবে প্রমাণিত হয়েছে। তিনি জেলহাজতে আছেন। বিচারের জন্য তাঁকে সোপর্দ করা হলো। চার্জশিটে মোট ১৩ জনকে সাক্ষী করা হয়েছে। তাঁরা আদালতে সাক্ষ্য দিয়ে রাজীবের অপরাধ প্রমাণ করবেন।

তদন্ত কর্মকর্তা উল্লেখ করেন, কাউন্সিলর রাজীব ছিলেন মোহাম্মদপুর ও আদাবর থানা এলাকার ত্রাস। রাজীব ও তাঁর সহযোগীদের ভয়ে এলাকায় কেউ মুখ খুলতে সাহস পায়নি। তাঁর বিরুদ্ধে কেউ মামলা-মোকদ্দমা করারও সাহস পায়নি। তিনি সব সময় অবৈধ অস্ত্র প্রদর্শন করতেন এবং সন্ত্রাসীদের নিয়ে চলাফেরা করতেন।

চার্জশিটে আরো বলা হয়, অবৈধ অস্ত্রের মাধ্যমে চাঁদাবাজি করে তিনি বিপুল সম্পদের মালিক হয়েছেন। আসামি অত্যন্ত ধূর্ত ও চালাক প্রকৃতির লোক। কাউন্সিলর নির্বাচিত হয়ে রাতারাতি মোহাম্মদপুর, চাঁদ উদ্যান ও রায়েরবাজার বেড়িবাঁধ এলাকায় নামে-বেনামে বিপুল সম্পত্তি করেছেন। তিনি নিত্যনতুন যানবাহনও ব্যবহার করতেন। মোহাম্মদপুর আদাবরে ‘অপরাধজগতের সুলতান’ হিসেবে তিনি আবির্ভূত হয়েছিলেন।

গত ১৯ অক্টোবর বারিধারার একটি বাসায় অভিযান চালিয়ে রাজীবকে গ্রেপ্তার করা হয়। এ সময় সাতটি বিদেশি মদের বোতল, একটি পিস্তল, একটি ম্যাগাজিন, তিন রাউন্ড গুলি, নগদ ৩৩ হাজার টাকা ও একটি পাসপোর্ট জব্দ করা হয়। এ ঘটনায় র‌্যাব অস্ত্র ও মাদক আইনে দুটি মামলা করে ভাটারা থানায়।

এদিকে ঢাকার মুখ্য মহানগর হাকিম আদালতে র‌্যাবের দাখিল করা অভিযোগপত্রে বলা হয়, মঞ্জু অবৈধ অস্ত্র ব্যবহার করে রাজধানী সুপার মার্কেট, টিকাটুলি ও ওয়ারী থানা এলাকায় চাঁদাবাজি, সন্ত্রাস ও ভূমি দখল করে বিপুল অর্থ-সম্পদের মালিক হয়েছেন বলে স্থানীয় তদন্তে জানা যায়। মঞ্জুু ও তাঁর সহযোগীরা এলাকায় ত্রাসের রাজত্ব কায়েম করেছিলেন। তাঁর ভয়ে এলাকায় কেউ মুখ খোলার সাহস পায়নি। বিশেষ করে ব্যবসায়ীদের জিম্মি করে মঞ্জু ও তাঁর সহযোগীরা অবৈধ সম্পদ অর্জন করেছেন।

গত ৩১ অক্টোবর দুপুরে টিকাটুলির নিজ কার্যালয় থেকে মঞ্জুকে গ্রেপ্তার করে র‌্যাব। অভিযান পরিচালনাকালে মঞ্জুর দখল থেকে দুটি আগ্নেয়াস্ত্র ও মাদক উদ্ধার করা হয়। ওই দিনই অস্ত্র ও মাদক আইনে ওয়ারী থানায় দুটি মামলা করে র‌্যাব।

Last modified on Friday, 29 November 2019 07:26
  1. Popular
  2. Trending
  3. Comments

Calender

« January 2020 »
Mon Tue Wed Thu Fri Sat Sun
    1 2 3 4 5
6 7 8 9 10 11 12
13 14 15 16 17 18 19
20 21 22 23 24 25 26
27 28 29 30 31