Login to your account

Username *
Password *
Remember Me

Create an account

Fields marked with an asterisk (*) are required.
Name *
Username *
Password *
Verify password *
Email *
Verify email *
Captcha *
Reload Captcha

করোনাভাইরাসে আক্রান্ত রোগীদের চিকিৎসা সেবা দেওয়ার নামে প্রতারণার অভিযোগে রিজেন্ট হাসপাতালের চেয়ারম্যান মো. সাহেদকে এক নম্বর আসামি করে মামলার প্রস্তুতি চলছে। সোমবার রাত ১১ টার দিকে অভিযান শেষে র‌্যাব কর্মকর্তারা এ কথা জানিয়েছেন।
এর আগে বেলা ২ টা থেকে র‍্যাবের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সারোয়ার আলমের নেতৃত্বে একটি দল প্রথমে উত্তরার ১১ নম্বর সেক্টরের ১৭ নম্বর সড়কে অবস্থিত রিজেন্ট হাসপাতালে অভিযান চালায়। সেখান থেকে আটজনকে আটকের পর র‍্যােবর দলটি মিরপুরে রিজেন্টের অন্য শাখায় অভিযান পরিচালনা করে।

রাত ১১ টার দিকে র‍্যাবের আইন ও গণমাধ্যম শাখার পরিচালক সারওয়ার বিন কাশেম প্রথম আলোকে বলেন, ‌'আমরা নিয়মিত মামলা করতে যাচ্ছি। এই মামলার এক নম্বর আসামি হবেন রিজেন্ট হাসপাতালের চেয়ারম্যান মো. সাহেদ। এখন পর্যন্ত র‍্যাব চারজন আসামির সম্পৃক্ততা পেয়েছে।'
অভিযান চলার সময় র‍্যাবের ম্যাজিস্ট্রেট সারোয়ার আলম সাংবাদিকদের বলেন, রিজেন্ট হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে তিন ধরনের অভিযোগ ও অপরাধের প্রমাণ তাঁরা পেয়েছেন। প্রথমত, তারা করোনার নমুনা পরীক্ষা না করে ভুয়া রিপোর্ট তৈরি করত। এ ধরনের ১৪টি অভিযোগ র‌্যাবের কাছে জমা পড়ে, যার পরিপ্রেক্ষিতে এই অভিযান। দ্বিতীয়ত, হাসপাতালটির সঙ্গে সরকারের চুক্তি ছিল ভর্তি রোগীদের বিনা মূল্যে চিকিৎসা দেওয়ার। সরকার এই ব্যয় বহন করবে। কিন্তু তারা রোগীপ্রতি লক্ষাধিক টাকা বিল আদায় করেছে (এ সময় সারোয়ার আলম গণমাধ্যমকর্মীদের বিলের নথি দেখান)। পাশাপাশি রোগীদের বিনা মূল্যে চিকিৎসা দিয়েছে এই মর্মে সরকারের কাছে ১ কোটি ৯৬ লাখ টাকার বেশি বিল জমা দেয়। সারোয়ার আলম বলেন, রিজেন্ট হাসপাতাল এ পর্যন্ত শ দুয়েক কোভিড রোগীর চিকিৎসা দিয়েছে।

সারোয়ার আলমের ব্রিফিং থেকে জানা যায়, রিজেন্ট হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের তৃতীয় অপরাধ হলো, সরকারের সঙ্গে চুক্তি ছিল ভর্তি রোগীদের তারা কোভিড পরীক্ষা করবে বিনা মূল্যে। কিন্তু তারা আইইডিসিআর, আইটিএইচ ও নিপসম থেকে ৪ হাজার ২০০ রোগীর বিনা মূল্যে নমুনা পরীক্ষা করিয়ে এনেছে।

* র‍্যাব বলছে, হাসপাতালটি করোনার নমুনা পরীক্ষা না করে ভুয়া রিপোর্ট তৈরি করত
* বিনা মূল্যে চিকিৎসা দেওয়ার কথা থাকলেও রোগীপ্রতি লক্ষাধিক টাকা বিল আদায় করেছে
* বিনা মূল্যে চিকিৎসা দিয়েছে দাবি করে সরকারের কাছে প্রায় ২ কোটি টাকা বিল চেয়েছে

পাশাপাশি নমুনা পরীক্ষা না করেই আরও তিন গুণ লোকের ভুয়া করোনা রিপোর্ট তৈরি করেছে।
সারোয়ার আলম আরও জানান, অভিযানে দেখা গেছে, রিজেন্ট হাসপাতালের লাইসেন্স ২০১৪ সালে শেষ হয়ে যায়। এরপর আর লাইসেন্স নবায়ন করা হয়নি। কীভাবে সরকার এমন একটি হাসপাতালের সঙ্গে কোভিড-১৯ রোগীদের চিকিৎসা চুক্তিতে গেল, তা খোঁজখবর নেওয়া হচ্ছে বলে জানান তিনি।
তবে মো. সাহেদ তাঁর বিরুদ্ধে ওঠা অভিযােগ অস্বীকার করেছেন। তিনি প্রথম আলোকে বলেন, তাঁর কখনই বিনামূল্যে চিকিৎসা দেওয়ার কথা ছিল না। স্বাস্থ্য অধিদপ্তরকে তিনি বলেছিলেন এক কোটি ৯৬ লাখ টাকা দিলে তিনি বিনামূল্যে চিকিৎসা দেবেন। ভুয়া পরীক্ষার ব্যাপারেও তিনি কিছু জানেন না। তিনি ষড়যন্ত্রের শিকার। এ নিয়ে ফেসবুকে পোস্ট দিয়েছেন।
র‌্যাব বলছে, এমন ভুয়া রিপোর্ট তৈরি করা হতো রিজেন্ট হাসপাতালের‌্যাব বলছে, এমন ভুয়া রিপোর্ট তৈরি করা হতো রিজেন্ট হাসপাতালেঅন্যদিকে সারোয়ার আলম বলেন, র‌্যাব এমন একটি অভিযান চালাবে তা টের পেয়েছেন রিজেন্ট হাসপাতালের চেয়ারম্যান মো. সাহেদ। অন্য কেউ তাঁর নামে এমন অপকর্ম করছেন, এমন মর্মে সাহেদ দিন দুয়েক আগে থানায় সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করেন। সারোয়ার আলমের ভাষ্য, মূলত নিজের অপরাধ ঢাকতে জিডির আশ্রয় নিয়েছেন সাহেদ।
তবে রিজেন্ট হাসপাতালের নামে প্রতারণার অভিযোগ এবং সনদ না থাকলেও চুক্তি কেন করা হলো জানতে চেয়ে খুদে বার্তা দিয়েও সাড়া পাওয়া যায়নি স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক আবুল কালাম আজাদের। উত্তর পাওয়া যায়নি অধিদপ্তরের হাসপাতাল শাখার পরিচালক আমিনুল হাসানেরও।
সপ্তাহ কয়েক আগে জেকেজি নামের একটি প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধেও পরীক্ষা না করে প্রতিবেদন দেওয়ার অভিযোগ ওঠে। ওই ঘটনায় প্রতিষ্ঠানটির অন্যতম কর্নধার আরিফুল চৌধুরীকে গ্রেপ্তার করা হয়। তবে তাঁর স্ত্রী ও প্রতিষ্ঠানটির চেয়ারম্যান সাবরিনা আরিফ চৌধুরীর বিরুদ্ধে কোনো ব্যবস্থা নেয়নি অধিদপ্তর। অধিদপ্তরের মহাপরিচালক জেকেজির কার্যক্রম দেখতে গেছেন, সঙ্গে হাস্যোজ্জ্বল মুখে সাবরিনা আরিফ চৌধুরী এমন একটি ছবি সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছড়িয়ে পড়ে।

জেকেজি কি করে নমুনা পরীক্ষার অনুমোদন পেল সে সম্পর্কেও অধিদপ্তর মুখ খোলেনি।

নবীগঞ্জে সুদের টাকার জন্য বাড়িঘরে হামলা ও ভাংচুরের ঘটনায় থানায় অভিযোগ করেছেন ভুক্তভোগি তাজুদ মিয়া। পরিবারে অভাব অনুটন দেখা দিলে তাজুদ মিয়া গত চৈত্র মাসে সুদে ২ হাজার টাকা আনেন সুফিয়া বেগম নামে এক মহিলার কাছ থেকে। গত জৈষ্ঠ্য মাসে ২ হাজার টাকার সুদে ১ হাজার টাকা লাভ দেওয়া হয়। পরবর্তীতে সব টাকা দেওয়া হবে জানান ও তিনি। এনিয়ে তাজুদ মিয়া সাথে মনোমালিণ্য সৃষ্টি হয় সুফিয়া বেগমের। এক পর্যায়ে এই ২ হাজার টাকার জন্য  বিষয়টি নিয়ে শালিস বিচার পর্যন্ত গড়ায়। এরই জের ধরে গত (৪ জুলাই) বিকেলে সুফিয়া বেগমের পক্ষে নূর ইসলাম ও তার লোকজন তাজুদ মিয়ার বাড়িতে হামলা ও বাড়িঘরে ভাংচুর করা হয়েছে এমন অভিযোগ তুলেন। এ ঘটনায় নবীগঞ্জ  উপজেলার দেবপাড়া ইউনিয়নের তাজুদ মিয়ার পিতা আলী মিয়া থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন। এ ব্যাপারে নবীগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ আজিজুর রহমান বলেন,এ বিষয়ে একটি অভিযোগ পেয়েছি। গোপলার বাজার ফাঁড়ি পুলিশকে তদন্ত করার জন্য বলা হয়েছে।  

বিএনপির চেয়ারপারসন দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়ার উপদেষ্টা সিলেট জেলা বিএনপির সাবেক সভাপতি এমএ হকের মৃত্যুতে গভীর শোক ও শোকসন্তপ্ত পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানিয়ে মরহুমের আত্মার মাগফেরাত কামনা করেছেন হবিগঞ্জ জেলা যুবদলের সহ-সভাপতি মোশাহিদ  আলম মুরাদ।। তিনি বলেন, সিলেট বিএনপিতে এমএ হকের অবদান চিরস্মরণীয় হয়ে থাকবে।

মুজিব বর্ষের আহবান, তিনটি করে গাছ লাগান’ও বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের ৭১তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উদযাপন উপলক্ষে বৃক্ষরোপণ কর্মসূচি পালন করেছেন নবীগঞ্জ পৌর আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা।সোমবার (০৬ জুলাই) দুপুরে উপজেলার নবীগঞ্জ জে. কে. সরকারি উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে ওই বৃক্ষরোপণ কর্মসূচি পালন করেন তারা। এসময় বনজ, ফলদ ও ভেষজ গাছ রোপণ করা হয়।বৃক্ষরোপন কার্যক্রমে প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন, নবীগঞ্জ পৌরসভার সাবেক মেয়র তোফাজ্জল ইসলাম চৌধুরী,বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, নবীগঞ্জ জে কে সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আব্দুস সালাম,পৌর আওয়ামীলীগের সভাপতি হাজ্বী মুজাহিদ আলম, সাধারন সম্পাদক নির্মলেন্দু দাশ রানা, সহ সভাপতি মহিবুর রহমান আকল,যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক গৌতম রায়, সাংগঠনিক সম্পাদক ওহি দেওয়ান চৌধুরী,পৌর আওয়ামী লীগ নেতা এটি এম রুবেল,নবীগঞ্জ পৌর যুবলীগের আহ্বায়ক ফজল চৌধুরী,নবীগঞ্জ পৌর যুবলীগের সিনিয়র যুগ্ম আহ্বায়ক হাবিবুর রহমান হাবিব,নবীগঞ্জ পৌর সেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি ইকবাল আহমেদ বেলাল,পৌর শ্রমিক লীগের সভাপতি হাফিজুর রহমান,নবীগঞ্জ পৌর ছাত্রলীগের সভাপতি বাবলু,ছাত্রলীগ নেতা রুবেল প্রমুখ।

 

 

গত কয়েকদিন ধরেই গুঞ্জন শোনা যাচ্ছে ক্লাব কর্মকর্তাদের সঙ্গে মতবিরোধের কারণে বার্সেলোনায় নিজের চুক্তি নবায়ন করবেন না আর্জেন্টাইন সুপারস্টার লিওনেল মেসি। গত কয়েকমাস ধরে ক্লাবের সঙ্গে সত্যিই কিছু বিষয়ে মতবিরোধ হয়েছে মেসির। যার ফলে এ গুঞ্জন ছড়িয়ে পড়তে সময় লাগেনি একদমই।তবে ক্লাব প্রেসিডেন্ট জোসেফ মারিয়া বার্তেমেউ অভয় দিয়েছেন, বার্সেলোনা ছেড়ে কোথাও যাবেন না মেসি। নিজের ক্যারিয়ারের শেষ ম্যাচও বার্সার জার্সিতেই খেলতে চান মেসি- এমনটাই মন্তব্য করেছেন বার্তেমেউ।ক্লাবের সঙ্গে মেসির বিরোধের ব্যাপারে তেমন কিছু বলেননি প্রেসিডেন্ট। বার্তেমেউ বলেছেন, ‘আমি এখনই বিস্তারিত কিছু বলবো না। তবে মেসি নিজেই অসংখ্যবার বলেছে, সে তার ফুটবল ক্যারিয়ার বার্সেলোনাতেই শেষ করবে।এসময় মেসির বার্সায় থাকার নিশ্চয়তা দিয়ে বার্তেমেউ বলেন, ‘আমরা আপাতত প্রতিযোগিতার কথা ভাবছি এবং বেশ কিছু খেলোয়াড়ের ব্যাপারে আলোচনা চলছে। মেসি এখানেই খেলতে চায় এবং ক্যারিয়ার শেষ করতে চায়। তার এখনও অনেক বছর বাকি এবং আমরা আরও অনেক তার খেলা উপভোগ করতে পারব।

 

রাজধানী ও টেকনাফে পৃথক বন্দুকযুদ্ধে চারজন নিহত হয়েছে। এর মধ্যে রাজধানীর খিলাগাঁওয়ে পুলিশের সাথে বন্দুকযুদ্ধে ২ ছিনতাইকারী ও টেকনাফে বিজিবির সঙ্গে বন্দুকযুদ্ধে ২ রোহিঙ্গা নিহত হয়।রোববার (৫ জুলাই) রাতে পৃথকস্থানে ঘটনা দুটি ঘটে।রাজধানীর খিলক্ষেতে ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশের (ডিবি) সঙ্গে কথিত বন্দুকযুদ্ধে দুইজন নিহত হয়েছেন। পুলিশের দাবি, নিহত দুইজন ছিনতাইকারী।

রোববার (৫ জুলাই) দিবাগত মধ্যরাতে খিলক্ষেতের কুড়াতলি এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।


খিলক্ষেত থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. বোরহানউদ্দিন বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।তিনি জানান, রাতে সড়কে পুলিশের ব্যারিকেড দেয়া ছিল। ছিনতাই চক্রের দুই সদস্য ছিনতাইয়ের প্রস্তুতিকালে ব্যারিকেডের সামনে পড়ে যায়। এ সময় পুলিশ তাদের থামতে বললে তারা পালানোর চেষ্টা করে। এ সময় ডিবির সঙ্গে বন্দুকযুদ্ধের ঘটনা ঘটে। এতে দুই ছিনতাইকারী নিহত হন। তবে প্রাথমিকভাবে নিহতদের নাম-পরিচয় জানা যায়নি।ময়নাতদন্তের জন্য নিহতদের মরদেহ ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে বলে জানান ওসি।
এদিকে, নাফ নদী সাঁতরিয়ে ইয়াবা নিয়ে অনুপ্রবেশকালে বিজিবির সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ দুই রোহিঙ্গা নিহত হয়েছেন। এ সময় উদ্ধার করা হয়েছে ৫০ হাজার ইয়াবা, একটি চায়না পিস্তল ও দুই রাউন্ড কার্তুজ।রোববার (৬ জুলাই) দিবাগত রাতে কক্সবাজারের টেকনাফের হ্নীলার ওয়াব্রাং গ্রামের নাফ নদের তীরে এ বন্দুকযুদ্ধের ঘটনা ঘটে। টেকনাফ-২ ব্যাটালিয়নের অধিনায়ক লে. কর্নেল ফায়সাল হাসান খান এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।নিহতরা হলেন, উখিয়া কুতুপালং ৫ নম্বর ক্যাম্পের জি ২/ই ব্লকের মোহাম্মদ শফির ছেলে মো. আলম (২৬) ও বালুখালী ২ নম্বর ক্যাম্পের কে-৩ ব্লকের মো. এরশাদ আলীর ছেলে মো. ইয়াছিন (২৪)।

লে. কর্নেল ফায়সাল হাসান খান জানান, টেকনাফের হ্নীলার ওয়াব্রাংয়ের নানীরবাড়ি অংশ দিয়ে মিয়ানমার থেকে মাদকের চালান আসার খবরে সেখানে অবস্থান নেন বিজিবির সদস্যরা। এ সময় কয়েকজন লোককে নাফ নদ সাঁতরে কিনারায় আসতে দেখে চ্যালেঞ্জ করলে তারা বিজিবিকে লক্ষ্য করে গুলিবর্ষণ করে। এতে বিজিবির ল্যান্স নায়েক মো. আব্দুল কুদ্দুস ও নায়েক মো. শাকের উদ্দিন আহত হন। আত্মরক্ষার্থে বিজিবিও পাল্টা গুলিবর্ষণ করে। উভয় পক্ষের মধ্যে ৪-৫ মিনিট গুলি বিনিময় হয়। পরে ঘটনাস্থল তল্লাশি চালিয়ে ৫০ হাজার পিস ইয়াবা, একটি চায়না পিস্তল ও দুই রাউন্ড কার্তুজ এবং গুলিবিদ্ধ দু’জনকে উদ্ধার করা হয়।

গুলিবিদ্ধদের উদ্ধার করে চিকিৎসার জন্য টেকনাফ উপজেলা হাসপাতালে নিলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাদের কক্সবাজার সদর হাসপাতালে স্থানান্তর করে। সেখানে নেয়ার পর তাদের মৃত্যু হয়। তাদের সঙ্গে থাকা আরো একজন মাদক কারবারি কেওরা বাগানের দিকে পালিয়ে যায়।

সিলেট শহীদ শামসুদ্দিন আহমদ হাসপাতালের করোনা ইউনিটে কর্মরত সিনিয়র স্টাফ নার্স (নার্সিং কর্মকর্তা) নাসিমা পারভীন মারা গেছেন।করোনা আক্রান্ত হয়ে শামসুদ্দিন হাসপাতালের আইসিইউতে চিকিৎসাধীন অবস্থায় সোমবার সকাল সাড়ে ৭টার দিকে তিনি মারা যান।
নাসিমা পারভিন ঠাকুরগাঁও সদর উপজেলার আকচা গ্রামের জিন্নাত আলী মজুমদারের স্ত্রী। ব্যক্তিগত জীবনে তিনি ৩ কন্যা সন্তানের জননী। 

বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন বাংলাদেশ নার্সেস এসোসিয়েশন (বিএনএ) সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল শাখার সাধারণ সম্পাদক ইসরাইল আলী সাদেক।তিনি জানান, করোনা রোগীদের সেবা দিতে গিয়ে সিনিয়র স্টাফ নার্স নাসিমা পারভীন করোনায় আক্রান্ত হন। গত ২ জুলাই তিনি শামসুদ্দিন হাসপাতালে ভর্তি হন এবং ৩ জুলাই তাকে আইসিইউতে স্থানান্তর করা হয়। সোমবার সকাল সাড়ে ৭টার সময় তিনি চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান।
এদিকে নার্সিং কর্মকর্তা নাসিমা পারভীনের মৃত্যুতে গভীর শোক প্রকাশ করছেন বাংলাদেশ নার্সেস এসোসিয়েশন (বিএনএ) সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল শাখার সভাপতি শামীমা নাসরিন ও সাধারণ সম্পাদক ইসরাইল আলী সাদেক।

স্কুলছাত্রীকে (১৬) ধর্ষণের পর বিবস্ত্র অবস্থায় টয়লেটে রেখে বস্তা দিয়ে ঢেকে পালিয়ে যায় ধর্ষক। ঘটনাটি ঘটেছে পঞ্চগড়ের তেঁতুলিয়া উপজেলার দেবনগর ইউনিয়নের সীতাপাড়া এলাকায়। ধর্ষকের নাম রুবেল হোসেন (২২)। বাড়ি ওই ইউনিয়নের হেংগাডোবা এলাকায়। তিনি ওই এলাকার মফিজুল ইসলামের ছেলে।এ ঘটনায় রবিবার তেঁতুলিয়া মডেল থানায় ধর্ষণের অভিযোগে রুবেলকে আসামি করে মামলা করে ওই স্কুলছাত্রীর বাবা। ঘটনার পর থেকেই পলাতক রয়েছে রুবেল। এদিকে গুরুতর অসুস্থ অবস্থায় ওই কিশোরীকে পঞ্চগড় আধুনিক সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। রুবেলের প্রেমের প্রস্তাবে সাড়া না দেয়ায় ওই স্কুল ছাত্রীকে ধর্ষণ করা হয়েছে বলে দাবি করেছে তার পরিবার।মামলার অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, দশম শ্রেণি পড়ুয়া ওই স্কুলছাত্রীকে পাশের গ্রামের রুবেল হোসেন দীর্ঘদিন ধরে উত্ত্যক্ত করে আসছিল। বিদ্যালয়ে যাতায়াতের পথে প্রেমের প্রস্তাব দিয়ে আসছিল। বিষয়টি স্কুলছাত্রী তার বাবা-মাকে জানালে তারা রুবেলের পরিবারকেও জানায়। এতে রুবেল আরো বেপরোয়া হয়ে ওঠে। গত শনিবার মধ্য রাতে ওই কিশোরী প্রকৃতির ডাকে সারা দিতে বাইরে বের হলে পেছনে তার মুখ চেপে একটি বাঁশবাগানে নিয়ে যায় রুবেল। সেখানে নিয়ে তাকে ধর্ষণ করে। এক পর্যায়ে মেয়েটি অজ্ঞান হয়ে পড়লে তাকে তার বাড়ির টয়লেটে বিবস্ত্র অবস্থায় রেখে তার ওপর খালি বস্তা ফেলে ঢাকা দিয়ে চলে যায় রুবেল।এদিকে ওই কিশোরীকে ঘরে না পেয়ে খোঁজাখুঁজি শুরু করে পরিবারের লোকজন। পরে বাঁশঝাড়ে রুবেলের জুতা, আন্ডারওয়ার এবং ওই কিশোরীর জামা খুঁজে পান তারা। কিন্তু কিশোরীকে পাওয়া যাচ্ছিল না। পরদিন সকালে পরিবারের লোকজন টয়লেটে গিয়ে বিবস্ত্র অবস্থায় খুঁজে পায় তাকে। পরে তাকে পঞ্চগড় আধুনিক হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।তেঁতুলিয়া মডেল থানার পরিদর্শক (তদন্ত) আবু সাঈদ চৌধুরী বলেন, স্কুলছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগ একটি মামলা হয়েছে। আসামিকে গ্রেপ্তারের জন্য অভিযান অব্যাহত। ওই কিশোরীর ডাক্তারি পরীক্ষা ও জবানবন্দি গ্রহণের প্রস্তুতি চলছে।

বিগ বস ১০ প্রতিযোগী মোনালিসার অভিনীত একটি সমকামী দৃশ্য এখন সোশাল মিডিয়ায় ভাইরাল। বাংলা ভাষার এই ভিডিওটি সম্প্রতি ইনস্টাগ্রামে প্রকাশ পেয়েছে।মোনালিসার আসল নাম অন্তরা বিশ্বাস। তিনি বাঙালি। ভোজপুরি ছবির পাশাপাশি টেলিভিশনে কয়েকটি বাংলা অনুষ্ঠানেও কাজ করেছেন। সেখান থেকেই ভিডিওটি ভাইরাল হয়েছে সোশাল সাইটে।সাহসী হিসেবে মোনালিসার খ্যাতি আছে। দেড় ইশকিয়া ছবিতে মাধুরী দীক্ষিত ও হুমা কুরেশি ঘনিষ্ঠ দৃশ্যে অভিনয় করার সময় ইতস্তত করেন। অস্বস্তি হয়েছিল তাঁদের। কিন্তু মোনালিসার যে ভিডিওটি প্রকাশ পেয়েছে, সেখানে দেখা গেছে অন্য এক মহিলাকে সিডিউস করছেন তিনি। প্রথমে কিছুক্ষণ বারণ করে সেই মহিলা নিজেও ভেসে যান। শুধু মোনালিসার জন্য নয়। বাংলা ছবির জন্যও ভিডিওটি যথেষ্ট সাহসী। “মোনালিসা লেসবিয়ান সিন” বা “বেঙ্গলি লেসবিয়ান সেক্স সিন অফ অন্তরা বিশ্বাস” বলে ভিডিওটি ছড়িয়ে পড়েছে ইন্টারনেটে।   বিগ বস ১০-এ এখন প্রতিযোগী হিসেবে আছেন মোনালিসা। গৌরব চোপড়া, বাণী জে, রোহন মেহেরা, মনবীর গুরজারের মতো প্রতিযোগীরাও তাঁর সঙ্গে আছেন।

গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে করোনাভাইরাস সংক্রমণে আরো ৪৪ জনের মৃত্যু হয়েছে। নতুন শনাক্ত হয়েছেন তিন হাজার ২০১ জন। এ নিয়ে দেশে করোনায় এ পর্যন্ত মৃত্যু হয়েছে দুই হাজার ৯৬ জনের। আর সব মিলিয়ে শনাক্ত হয়েছেন এক লাখ ৬৫  হাজার ৬১৮ জন।

আজ সোমবার (৬ জুলাই) স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের করোনাভাইরাস পরিস্থিতি নিয়ে সরকারি বুলেটিনে এসব তথ্য জানানো হয়েছে। বুলেটিন প্রকাশে অংশ নেন স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা. নাসিমা সুলতানা।

ডা. নাসিমা বলেন, গত ২৪ ঘণ্টায় করোনা সংক্রমণে দেশে আরো ৪৪ জনের মৃত্যু হয়েছে। এঁরা ৩৩ জন পুরুষ এবং ১১ জন নারী। এঁদের বয়স ২১ থেকে ৩০ বছরের মধ্যে একজন, ৩১ থেকে ৪০ বছরের মধ্যে দুইজন, ৪১ থেকে ৫০ বছরের মধ্যে ছয়জন, ৫১ থেকে ৬০ বছরের মধ্যে ১৩ জন, ৬১ থেকে ৭০ বছরের মধ্যে ১৫ জন, ৭১ থেকে ৮০ বছরের মধ্যে ছয়জন এবং ৮১ থেকে ৯০ বছরের মধ্যে একজন। এ নিয়ে দেশে করোনায় এ পর্যন্ত মৃত্যু হয়েছে দুই হাজার ৯৬ জনের।

এ পর্যন্ত যাঁরা মৃত্যুবরণ করেছেন তাঁদের মধ্যে পুরুষ এক হাজার ৬৫৭ জন এবং নারী ৪৩৯ জন। পুরুষ ৭৯ দশমিক ০৫ শতাংশ এবং নারী ২০ দশমিক ৯৫ শতাংশ।

জানানো হয়, নতুন যে ৪৪ জনের মৃত্যু হয়েছে তাঁরা ঢাকা বিভাগের ১৭ জন, চট্টগ্রাম বিভাগের ১১ জন, রাজশাহী বিভাগের তিনজন, খুলনা বিভাগের দুইজন, বরিশাল বিভাগের চারজন, সিলেট বিভাগের তিনজন, রংপুর বিভাগের দুইজন এবং ময়মনসিংহ বিভাগের দুইজন। হাসপাতালে মারা গেছেন ৩৫ জন এবং বাসায় ৯ জন।

এ ছাড়া গত ২৪ ঘণ্টায় সুস্থ হয়েছেন তিন হাজার ৫২৪ জন। এ নিয়ে দেশের করোনা সংক্রমণ থেকে এ পর্যন্ত সুস্থ হয়েছেন ৭৬ হাজার ১৪৯ জন।

ডা. নাসিমা জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় নমুনা সংগ্রহ হয়েছে ১৫ হাজার ২০১টি। একই সময় পূর্বের নমুনাসহ পরীক্ষা হয়েছে ১৪ হাজার ২৪৫টি। এর মধ্যে করোনা রোগী হিসেবে শনাক্ত করা হয়েছে তিন হাজার ২০১ জনকে। এ নিয়ে দেশে এ পর্যন্ত করোনা রোগী শনাক্ত হয়েছেন এক লাখ ৬৫ হাজার ৬১৮ জন। আর এ পর্যন্ত নমুনা পরীক্ষা হয়েছে আট লাখ ৬০ হাজার ৩০৭টি।

সারা দেশের করোনা চিকিৎসার জন্য নির্ধারিত হাসপাতাল সম্পর্কে তথ্যে বলা হয়, ঢাকা মহানগরীতে করোনা রোগীদের জন্য সাধারণ শয্যার সংখ্যা ছয় হাজার ৭৫টি এবং আইসিইউ শয্যার সংখ্যা ১৪৯টি, সারা দেশে সাধারণ শয্যার সংখ্যা ১৪ হাজার ৭৭৫টি, সারা দেশে আইসিইউ শয্যার সংখ্যা ৪০১টি এবং সারা দেশে অক্সিজেন সিলিন্ডারের সংখ্যা ১১ হাজার ৭৮৫টি।

এ পর্যন্ত সারা দেশে সাধারণ শয্যায় ভর্তি করোনা রোগীর সংখ্যা চার হাজার ৪৪৯ জন, আইসিইউ-তে ভর্তি রোগীর সংখ্যা ২২০ জন, সারা দেশে সাধারণ শয্যায় গত ২৪ ঘণ্টায় ভর্তি রোগীর সংখ্যা ৭১৫ জন এবং একইসময় ছাড় পেয়েছেন ৬৪৪ জন।

আইসোলেশন প্রসঙ্গে জানানো হয়, গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে আইসোলেশনে নেওয়া হয়েছে আরো ৬৭৭ জনকে। একইসময় আইসোলেশন থেকে ছাড় পেয়েছেন ৫৯৮ জন। এ পর্যন্ত আইসোলেশনে গেছেন ৩১ হাজার ৫৪৯ জন। এ পর্যন্ত আইসোলেশন থেকে ছাড় পেয়েছেন ১৪ হাজার ৭৫৫ জন। বর্তমানে আইসোলেশনে আছেন ১৬ হাজার ৭৯৪ জন।

কোয়ারেন্টিন প্রসঙ্গেও তথ্য দেওয়া হয় বুলেটিনে। বলা হয়, গত ২৪ ঘণ্টায় হোম এবং প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টিনে এসেছেন দুই হাজার ১৭৮ জন। একইসময় কোয়ারেন্টিন থেকে ছাড় পেয়েছেন দুই হাজার ৮৩৯ জন। আর এ পর্যন্ত কোয়ারেন্টিনে গেছেন মোট তিন লাখ ৭৯ হাজার ১৭০ জন। আর এ পর্যন্ত কোয়ারেন্টিন থেকে ছাড় পেয়েছেন তিন লাখ ১৫ হাজার ৩৬৯ জন। ছাড়ের পর বর্তমানে হোম এবং প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টিনে আছেন ৬৩ হাজার ৮০১ জন।

সারা দেশের জেলা ও উপজেলা পর্যায়ে প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টিনের জন্য প্রস্তুত ৬২৯টি প্রতিষ্ঠান। এর মাধ্যমে তাৎক্ষণিকভাবে ৩১ হাজার ৯৯১ জনকে সেবা প্রদান যায় বলে জানানো হয় বুলেটিনে।

বুলেটিনে আরো জানানো হয়, গত ২৪ ঘণ্টায় স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের স্বাস্থ্য বাতায়ন এবং আইইডিসিআর'র হটলাইনে কল এসেছে এক লাখ ৬০ হাজার ১৭৮টি। এ নিয়ে এ পর্যন্ত হটলাইনে এক কোটি ৪৯ লাখ সাত হাজার ৪৫৪ জনকে স্বাস্থ্য পরামর্শ দেওয়া হয়েছে। এসব কলে সবাইকে স্বাস্থ্য পরামর্শ দেওয়া হয়েছে।

প্লাটফর্ম মুক্তপাঠ-এ অনলাইনে সেবা দেওয়ার জন্য মোট প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত চিকিৎসকের সংখ্যা ১৬ হাজার ৪১৪ জন। এ ছাড়া বর্তমানে স্বেচ্ছাসেবক হিসেবে হটলাইনে চার হাজার ২১৭ জন চিকিৎসক স্বাস্থ্য পরামর্শ দিয়ে যাচ্ছেন বলে জানানো হয় বুলেটিনে।  

  1. LATEST NEWS
  2. Trending
  3. Most Popular

LIVE STREAMING

Jun 11, 2019 257 Movies