Tuesday, 12 May 2020 13:30

ভোটারবিহীন সরকার জনগণের প্রতি নিম্নতম দায়বদ্ধতা নেই, ত্রাণ বিতরণে তৃণমূলে জি কে গউছ Featured

✍ নিজস্ব প্রতিনিধিঃ
হবিগঞ্জ জেলা শহরসহ তৃণমূলে জি কে গউছ হবিগঞ্জ জেলা শহরসহ তৃণমূলে জি কে গউছ

 বিএনপির সিনিয়র ভাইস প্রেসিডেন্ট তারেক রহমানের নির্দেশনায় করোনার এই কঠিন সময়ে কর্মহীন হয়ে পড়া খেটে খাওয়া হতদরিদ্রদের পাশে ত্রাণ নিয়ে জেলা উপজেলার সাধারণ মানুষকে খাদ্য সহায়তা প্রদান করতে তৃণমূলে জি কে গউছ। মঙ্গলবার (১২ মে) নবীগঞ্জ উপজেলার বিভিন্ন ইউনিয়নে বিএনপির ত্রাণ বিতরণে অংশ নেন হবিগঞ্জ জেলা বিএনপির সাবেক সাধারণ সম্পাদক হবিগঞ্জ পৌরসভার পদত্যাগকারী মেয়র ও কেন্দ্রীয় বিএনপির সমবায় বিষয়ক সম্পাদক আলহাজ্ব জি কে গউছ। এসময় তিনি বলেন, করোনা ভাইরাস চায়না পরে সারাবিশ্বে এটি ছড়িয়েছে। বিএনপি প্রথম থেকে বলে আসছিল যারা রাষ্ট্র পালনে দায়িত্বে আছেন তারা যেন শুরু থেকেইে সক্রিয় থাকেন। এই মরণব্যাধিটি যেন কোনো ভাবেই আমাদের দেশে প্রবেশ না করতে পারে। আমরা দেখেছি এই বর্তমান ভোটারবিহীন সরকার জনগণের প্রতি নিম্নতম দায়বদ্ধতা না থাকার কারনেই শুরু থেকেই উদাসীন ছিল। এখন ও এই সরকার উদাসীন। মুখে বলে লকডাউন কাজে কোনো লকডাউন এই বাংলাদেশে নাই। জনগণের টেক্সের টাকায় কেনা ত্রাণ আওয়ামীলীগের নেতাকর্মীরা রাস্তায় বিক্রি করছেন। এই ত্রাণ সামগ্রী তাদের বাড়ি ঘরে খাটের নিচে পাওয়া যায়। তারা দেশের ক্ষুধার্ত মানুষের ত্রাণ নিয়ে ছিনিমিনি খেলছেন। তাই বিএনপির ভাইস প্রেসিডেন্ট তারেক রহমানের নির্দেশনায় ক্ষুধার্ত মানুষের জন্য ত্রাণ সহায়তা নিয়ে নীরবে বিতরণ করে আসছি। তিনি আরো বলেন, করোনার প্রদুর্ভাবে বিশ্ব আজ স্তব্ধ কে মরব কে বাঁচব জানি না। তবে একটা কথা বলতে চাই। বিএনপির নিরিহ নেতাকর্মীদের বিরুদ্ধে হয়রানিমূলক যে সকল মিথ্যা মামলা রয়েছে তা প্রত্যাহার করেন। ত্রাণ বিতরণে অন্যান্যর মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, জেলা বিএনপির সাবেক সভাপতি সফিকুর রহমান ফারছু, নবীগঞ্জ উপজেলা বিএনপির আহবায়ক সরফরাজ চৌধুরী, যুগ্ম আহবায়ক মুজিবুর রহমান শেফু, শিহাব আহমেদ চৌধুরী, নবীগঞ্জ উপজেলা যুবদলের সাবেক সভাপতি মজিদুল করিম মজিদ,জেলা যুবদলের সাধারণ সম্পাদক জালাল আহমেদ, সহ-সভাপতি মোশাহিদ আলম মুরাদ, ছাত্রদলের সাবেক সভাপতি হারুনুর রশিদ, সাধারণ সম্পাদক জোসেফ বখত চৌধুরী, জেলা ছাত্রদলের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক জহিরুল ইসলাম সোহেল, জি কে ঝলক, সাংগঠনিক সম্পাদক শাহ রাজিব আহমেদ রিংগন প্রমুখ।

Read 79 times
Rate this item
(1 Vote)
Login to post comments
  1. LATEST NEWS
  2. Trending
  3. Most Popular