October 7, 2022
Wednesday, 05 February 2020 18:04

অভিশংসন নিয়ে সিনেটে চূড়ান্ত ভোট, নিষ্কৃতির পথে ট্রাম্প

✍ Online Desk

 

ক্ষমতার অপব্যবহার ও কংগ্রেসের তদন্তে বাধার অভিযোগে চার মাস আগে পার্লামেন্টের নি¤œকক্ষ প্রতিনিধি পরিষদ থেকে অভিশংসিত হন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডনাল্ড ট্রাম্প। চলতি বছরের শুরুতে সে অভিযোগ নিয়ে উচ্চকক্ষ সিনেটে বিচার শুরু হয়। স্থানীয় সময় বুধবার বিকাল ৪টায় (বাংলাদেশ সময় দিবাগত রাত ৩টা) তাকে অভিশংসনের ব্যাপারে চূড়ান্ত ভোট দেয়ার কথা রয়েছে সিনেটরদের। তবে ধারণা করা হচ্ছে, ভোটে নিষ্কৃতি পেয়ে যাবেন ট্রাম্প। এ খবর দিয়েছে বার্তা সংস্থা রয়টার্স।
খবরে বলা হয়, প্রতিনিধি পরিষদে অভিশংসিত হওয়া প্রথম রিপাবলিকান ও মার্কিন ইতিহাসে তৃতীয়তম প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প। এর আগে ডেমোক্রেট প্রেসিডেন্ট অ্যান্ড্রিও জনসন ও বিল ক্লিনটন নি¤œকক্ষ থেকে অভিশংসিত হয়েছিলেন। উভয়েই সিনেটে অভিযোগ থেকে নিষ্কৃতি পেয়ে যান। ট্রাম্পের ক্ষেত্রেও একই ঘটনার পুনরাবৃত্তি ঘটবে বলে ধারণা করা হচ্ছে।
 
কয়েকদিন আগে মামলার বিচারকার্যে ডেমোক্রেটদের সাক্ষী ডাকার গুরুত্বপূর্ণ একটি আবেদনের বিপক্ষে ভোট দেন সিনেটররা। ওই আবেদন অনুমোদন পেলে মামলা ভিন্ন মোড় নিতো বলে প্রত্যাশা করেছিল ডেমোক্রেটরা। কয়েকদিন আগেই ট্রাম্পের সাবেক জাতীয় নিরাপত্তা বিষয়ক উপদেষ্টা জন বল্টনের এক অপ্রকাশিত বইয়ে ট্রাম্পের বিরুদ্ধে আনা অভিযোগ নিয়ে চাঞ্চল্যকর তথ্য থাকার খবর বের হয়। সে তথ্যের ভিত্তিতে বল্টনসহ বেশ কয়েকজনের সাক্ষ্য শোনার আহ্বান জানিয়েছিল ডেমোক্রেটরা। তবে রিপাবলিকানরা ট্রাম্পের পক্ষে দৃঢ় সমর্থন দেখিয়েছেন। দুজন ছাড়া সকল রিপাবলিকান সিনেটর সাক্ষী ডাকার বিপক্ষে ভোট দিয়েছেন।
১০০ আসনের সিনেটে রিপাবলিকানদের দখলে রয়েছে ৫৩ আসন। ট্রাম্পকে অভিশংসন করতে অন্তত দুই-তৃতীয়াংশ বা ৬৭টি ভোট প্রয়োজন। তা প্রায় অসম্ভব বলেই জানিয়েছেন বিশ্লেষকরা।
প্রসঙ্গত, গত বছরের জুলাইয়ে ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট ভøাদিমির জেলেনস্কির সঙ্গে এক ফোনালাপ ঘিরে ট্রাম্পের বিরুদ্ধে ক্ষমতার অপব্যবহারের অভিযোগ আনা হয়। ওই ফোনালাপে জেলেনস্কিকে নিজের ডেমোক্রেট প্রতিদ্বন্দ্বী জো বাইডেন ও তার ছেলের বিরুদ্ধে দুর্নীতির তদন্ত চালু করতে চাপ দিয়েছিলেন ট্রাম্প। অন্যথায়, ইউক্রেনের জন্য বরাদ্দ করা সামরিক সহায়তা আটকে রাখার হুমকি দিয়েছিলেন। এ নিয়ে কংগ্রেসে তদন্ত শুরু হলে সে তদন্তে সহযোগিতা করেননি তিনি। অনেকক্ষেত্রে যথাযথ তথ্য দিতে অস্বীকৃতি ও সাক্ষী আটকে রেখে বাধার সৃষ্টি করেছেন বলেও অভিযোগ রয়েছে তার বিরুদ্ধে
Last modified on Wednesday, 05 February 2020 18:14
Rate this item
(1 Vote)
Login to post comments
  1. LATEST NEWS
  2. Trending
  3. Most Popular