October 7, 2022
নবীগঞ্জের সংবাদ

নবীগঞ্জের সংবাদ (1787)

ঢাকা-সিলেট মহাসড়কের নবীগঞ্জ দেবপাড়া বাজারে ঈদের কেনাকাটা করতে আসা আজিজ মিয়া (৪৫) নামের এক ব্যক্তি রাস্তা পারাপারের সময় দ্রুতগামী একটি কাভারভ্যান গাড়ীর ধাক্কায় প্রাণ হারিয়েছেন। নিহত আজিজ মিয়া উপজেলার পানিউন্দা ইউপির নোয়াগাও গ্রামের মৃত সাবাজ মিয়ার ছেলে। পুলিশ ও স্থানীয় সুত্রে জানাযায়, উক্ত আজিজ মিয়া আসন্ন ঈদুল ফিতরের কেনাকাটা করার জন্য দেবপাড়া বাজারে আসেন। কেনাকাটা শেষে রাস্তা পারাপারের সময় সিলেট থেকে ছেড়ে আসা মাধবপুর গামী একটি কোম্পানীর বেপরোয়া গতিতে আসা কাভারভ্যান নং ঢাকা মেট্রো ঙ ১২-০২০২ সজোরে ধাক্কা দিলে তিনি গুরুতর আহত হন। স্থানীয় লোকজন তাকে সিলেট ওসমানী হাসপাতালে নেয়ার পথে তার মৃত্যু ঘটে। শেষ পর্যন্ত ঈদ করা হলো না আজিজ মিয়ার। ঈদের আনন্দের বদলে তার বাড়িতে চলছে শোকের মাতম। শেরপুর হাইওয়ে পুলিশ ও গোপলার বাজার ফাড়ি পুলিশ মৃতদেহ উদ্ধার করেছে এবং ঘাতক গাড়ী আটক করেছে।

নবীগঞ্জে স্কুল ছাত্রীকে নিয়ে শিক্ষকের পলায়ন। ঘটনাটি ঘটেছে নবীগঞ্জ শহরের অভয়নগর এলাকায় অবস্থিত আরমান উল্লা হাইস্কুল ইসলামী একাডেমীতে।এ নিয়ে এলাকায় আলোচলা সমালোচনার ঝড় বইছে। খোঁজ নিয়ে জানাযায়, নবীগঞ্জ উপজেলার বাউশা ইউনিয়নের নাদামপুর গ্রামের সৌদি প্রবাসী মোঃ সেলিম আহমদের জনৈক কন্যা আরমান উল্লাহ ইসলামীক একাডেমির ৯ম শ্রেণীর ছাত্রী ছিল সে। স্কুলে আসার যাওয়ার সুবাধে শিক্ষক ফয়ছাল আহমেদের সাথে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। ফয়ছাল ওই স্কুলে শিক্ষকতা ছেড়ে দিয়ে অন্য একটি শিক্ষা প্রতিষ্টানে শিক্ষকতা করলেও তিনি প্রতিনিয়তই ছাত্রীর সাথে দেখা স্বাক্ষাত প্রেম আলপান চালিয়ে যেতেন।এরই সুবাাধে গত ২৫ এপ্রিল আরমান উল্লাহ ইসলামীক একাডেমি থেকেই ভালবেসে ঘর বাধার স্বপ্ন নিয়ে শিক্ষক ফয়ছাল আহমেদের হাত ধরে পালিয়ে যান ওই ছাত্রী। শিক্ষকের সাথে ছাত্রীর পলায়ন বিষয়টি এলাকায় ছড়িয়ে গেলে রসালো সমালোচানার ঝড় বইতে শুরু করে। ঘটনার ৫ দিন অতিবাহিত হওয়ার পর কোন খোঁজ খবর পাওয়া যায় নিয়ে ছাত্রীর মা জানান। তিনি আরো বলেন প্রতিদিনের ন্যায় আমার মেয়ে স্কুলে গেলে আর বাড়ি ফিরেনি। সকল আত্মীয়  স্বজনের বাসা বাড়ি খোঁজে থাকে না পেয়ে  নবীগঞ্জ থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেনবলে তিনি জানান। এ ঘটনায় আরমান উল্লাহর ইসলামী একাডেমির প্রধান শিক্ষক মোঃ সুহেল আহমদ ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন বলেন,ফয়ছাল আহমদ আমাদের একাডেমীর সাবেক শিক্ষক তিনি বর্তমানে অন্য এক শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে শিক্ষকতা করেন। মেয়েটি আমাদের স্কুলের ছাত্রী। স্কুল ছুটির হওয়ার পরে ছাত্রী বাড়ী যাওয়ার পথে ঘটনাটি ঘটেছে। তিমিরপুর দারুল হিকমাহ মাদ্রাসার প্রিন্সিপাল লুৎফুর রহমান জানান,ফয়ছাল আমাদের মাদ্রাসায় ২ মাস পূর্বে ইংরেজি শিক্ষক হিসাবে যোগদান করেন।ঘটনাটি তিনি শুনেছেন। এ ব্যাপারে নবীগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ ডালিম আহমেদ বলেন, বিষয়টি নিয়ে আমার সাথে পরামর্শ করেছেন ছাত্রীর আত্মীয় ও একাডেমীর শিক্ষকবৃন্দ। কোন অভিযোগ পাইনি অভিযোগ পেলে আইনানুক ব্যবস্থা নিব।

নবীগঞ্জ উপজেলা প্রশাসন ও উপজেলা পরিষদ কর্তৃক নবীগঞ্জ শহরস্থ দারুল উলুম মাদ্রাসা ও এতিমখানায় এতিম ছাত্রদের সম্মানে শুক্রবার (২৯ এপ্রিল) দোয়া ও ইফতার মাহফিলের আয়োজন করা হয়। ইফতার পুর্ব এক আলোচনা সভায় সভাপতিত্ব করেন উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ শেখ মহি উদ্দিন। প্রধান অতিথি ছিলেন উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ফজলুল হক চৌধুরী সেলিম। সম্মানিত অতিথি হিসেবে অংশ গ্রহন করেন প্রাক্তন সিভিল সার্জন ও মাদ্রাসা পরিচালনা কমিটির সভাপতি ডাঃ সফিকুর রহমান, ইউপি চেয়ারম্যান সৈয়দ খালেদুর রহমান, সাদিকুর রহমান শিশু, নির্মলেন্দু দাশ রানা, হাবিবুর রহমান, পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির সাবেক সভাপতি এড. ফারুক আহমেদ, উপজেলা আওয়ামীলীগ যুগ্ম সম্পাদক কাজী ওবায়দুল কাদের হেলাল, হিরামিয়া গার্লস স্কুলের প্রাক্তন প্রধান শিক্ষক এটিএম বশির আহমদ স্বপন, জেকে হাইস্কুলের প্রধান শিক্ষক আব্দুস ছালাম, প্রাক্তন জেলা পরিষদ সদস্য আব্দুল মালিক, সাবেক প্যানেল মেয়র-১ ও প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি এটিএম সালাম, এসআই স্বপন চন্দ্র সরকার, এসআই আমীর হামজা, পৌর আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ওহি দেওয়ান চৌধুরী, যুবলীগের যুগ্ম আহŸায়ক লোকমান হোসেন খানঁ, পৌর স্বেচ্ছাসেবকলীগের সভাপতি ইকবাল আহমেদ বেলালসহ বিভিন্ন রাজনৈতিক, সামাজিক, সাংস্কৃতিক সংগঠনের নেতৃবৃন্দ অংশ গ্রহন করেন। এর আগে দেশের শান্তি ও সম্বৃদ্ধি কামনায় বিশেষ মোনাজাত করেন অত্র মাদ্রাসার মুহতামিম মুফতি মাহবুবুর রহমান। উল্লেখ্য, এবারই প্রথম উপজেলা প্রশাসন ও উপজেলা পরিষদের উদ্যোগে নবীগঞ্জ শহরে অবস্থিত ঐতিহ্যবাহী দ্বীনি শিক্ষা প্রতিষ্টান দারুল উলুম মাদ্রাসা ও এতিমখানায় এতিম ছাত্রদের সম্মানে দোয়া ও ইফতার মাহফিলের আয়োজন করা হলো। ফলে মাদ্রাসার প্রায় ৮০ জন এতিম ছাত্ররা তৃপ্তি নিয়ে ইফতার করলো।

নবীগঞ্জ প্রেস ক্লাবের ইফতার মাহফিল গতকাল শুক্রবার ক্লাব র্কাযালয়ে অনুষ্টিত হয়েছে। নবীগঞ্জ প্রেস ক্লাবের সহসভাপতি এম এ মুহিতের সভাতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক মহিবুর রহমান চৌধুরী তছনুর পরিচালনায় অনুষ্টিত ইফতার মাহফিলে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল বিএনপির জাতীয় নির্বাহী কমিঠির সদস্য সাবেক সংসদ সদস্য আলহাজ্ব শেখ সুজাত মিয়া। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন নবীগঞ্জ পৌর সভার মেয়র আলহাজ্ব ছাবির আহমেদ চৌধুরী, উপজেলা স্বাস্থ্য ও পঃ পঃ কর্মকর্তা ডাঃ আব্দুস সামাদ, নবীগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (তদন্ত) মোঃ আমিনুল ইসলাম, জাতীয় পার্টির কেন্দ্রেীয় সদস্য ডাঃ শাহ আবুল খয়ের, উপজেলা বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম আহবায়ক মুজিবুর রহমান শেফু, উপজেলা জাতীয় পার্টির যুগ্ম আহব্বায়ক হাজী হায়দর মিয়া, বিশিষ্ট লেখক ও কবি আপ্তাব আল মাহমুদ এবং ইউ.এস বাংলা ডট কমের নির্বাহী সম্পাদক ও নবীগঞ্জ প্রেস ক্লাবের সদস্য যুক্তরাষ্ট্র প্রবাসী ফয়জুল ইসলাম চৌধুরী নয়ন। উপস্থিত ছিলেন নবীগঞ্জ প্রেস ক্লাবের সাবেক সভাপতি এস.আর. চৌধুরী সেলিম, ফখরুল আহসান চৌধুরী, আনোয়ার হোসেন মিঠু, তোফাজ্জল হোসেন, এটিএম সালাম, এম.এ. আহমদ আজাদ, সরোয়ার শিকদার, সাবেক সাধারণ সম্পাদক মোঃ আলমগীর মিয়া, বর্তমান অর্থ সম্পাদক মোঃ মুজাহিদ চৌধুরী, নির্বাহী সদস্য আশাহীদ আলী আশা, এ.টি.এম. জাকিরুল ইসলাম, সাবেক সহসভাপতি সুবিনয় রায় বাপ্পি, শাহ সুলতান আহমদ, এম. মুজিবুর রহমান, সাবেক অর্থ সম্পাদক মোঃ আকিকুর রহমান সেলিম, মোঃ শওকত আলী. ক্লাব সদস্য সিনিয়র সাংবাদিক মোঃ আবু তালেব, মোঃ ছাদিকুল ইসলাম, মোঃ অলিউর রহমান, মোঃ নাবেদ মিয়া, ছনি চৌধুরী, সংবাদপত্র এজেন্ট মোঃ মোশাহিদ আলী, আব্দুল মজিদ মিয়াধন, সাংবাদিক আলাল মিয়া, হাসান চৌধুরী, ইকবাল হোসেন তালুকদার, সাগর মিয়া, সফিকুল ইসলাম নাহিদ, মোঃ জাফর ইকবাল, রেজুয়ানুল ইসলাম তুহিন, উপজেলা যুবদল নেতা জিতু মিয়া সেন্টু, ছাত্রনেতা মোঃ মইনুল ইসলাম, মির্জা নূর মোহাম্মদ সেলিম, মোস্তাফিজুর রহমার চৌধুরী, আতাউর রহমান শামীম, মনির হোসেন প্রমূখ। ইফতার পূর্ববর্তী আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বর্ক্তৃতাকালে প্রধান অতিথি শেখ সুজাত মিয়া স্বেচ্ছায় নবীগঞ্জ প্রেস ক্লাবের ভবন নির্মানের সমস্ত দায়িত্ব গ্রহন করবেন বলে ঘোষণা প্রদান করেন। তিনি আরো বলেন, সাংবাদিকরা হচ্ছেন জাতির বিবেক। সাংবাদিকরা জীবনের ঝুকি নিয়ে কাজ করেন। তিনি বস্তু নিষ্ট সংবাদ প্রকাশের জন্য উপস্থিত সকল সাংবাদিকের প্রতি আহবান জানান। ইফতার শুরুর পূর্বে বিশ্বের সকল মুসলিম উম্মাহর শান্তি কামনা করে মোনাজাত পরিচালনা করেন নবীগঞ্জ প্রেস ক্লাবের সাবেক সহসভাপতি শাহ সুলতান আহমদ।

পবিত্র ঈদ- উল ফিতর উপলক্ষে নবীগঞ্জ পৌরসভার ৯টি ওর্য়াডে বরাদকৃত ভিজিএফ কার্ডধারী ৪৬২৩ জন লোকের মাঝে ১০ কেজি করে চাল বিতর করা সর্ম্পূন হয়েছে। গত মঙ্গলবার ভিজিএফ চাল বিতরনের কার্যক্রম শুরু করে বৃহস্পতিবার বিকেলে এই চাল বিতরন কার্যক্রম শেষ হয়। চাল বিতরন কার্যক্রম শেষ দিনে উপস্থিত ছিলেন পৌর মেয়র আলহাজ্ব ছাবির আহমদ চৌধুরী,এসময় উপস্থিত ছিলেন উপজেলা মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা নুসরাত ফৈরদৌসী, প্যানেল মেয়র-১ জায়েদ চৌধুরী,প্যানেল মেয়র-২ আব্দুস ছোবহান,প্যানেল মেয়র-৩ ফারজানা আক্তার পারুল, কাউন্সিলর জাকির হোসেন, বাবুল দাশ, যুবরাজ গোপ, ফজল আহমদ চৌধুরী,কবির মিয়া,নানু মিয়া সৈয়দা নাজিমা বেগম, পূনিমা রানী দাশসহ পরিষদেও কর্মকর্তা কর্মচারীবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

লাইলাতুল কদর এক মহিমান্বিত রজনি। সিয়াম সাধনার মাসের এই রাতে মানবজাতির পথ নির্দেশক পবিত্র আল-কোরআন পৃথিবীতে নাজিল হয়েছিল। পবিত্র কোরআনের শিক্ষা আমাদের মধ্যে পার্থিব সুখ-শান্তির পাশাপাশি আখিরাতের মুক্তির পথ দেখায়। বৃহস্পতিবার (২৮ এপ্রিল) পবিত্র শবেকদর উপলক্ষে দেওয়া বাণীতে নবীগঞ্জ পৌর যুবদলের আহবায়ক প্রেসক্লাবের সাবেক সাধারন সম্পাদক দৈনিক নবীগঞ্জ ডাকের ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক মোঃ আলমগীর মিয়া এসব কথা বলেন। এ সময় তিনি পবিত্র লাইলাতুল কদর উপলক্ষে তিনি নবীগঞ্জ পৌরবাসীসহ দেশে বিদেশের সকল মুসলিম ধর্মালম্বী সকলকে আন্তরিক শুভেচ্ছা ও মোবারকবাদ জানান। মহান আল্লাহ তায়ালা লাইলাতুল কদরের রাতকে অনন্য মর্যাদা দিয়েছেন। হাজার মাসের ইবাদতের চেয়েও এ রাতের ইবাদত উত্তম। এই রাতে আল্লাহর অশেষ রহমত ও নিয়ামত বর্ষিত হয়। পবিত্র এই রাতে ইবাদত-বন্দেগীর মাধ্যমে আমরা মহান আল্লাহর নৈকট্য লাভ করতে পারি। অর্জন করতে পারি তাঁর অসীম রহমত, নাজাত, বরকত ও মাগফিরাত।‘আসুন, আমরা সকলে এই মহিমান্বিত রজনিতে মহান আল্লাহ তায়ালার দরবারে বিশেষভাবে ইবাদত ও দোয়া প্রার্থনা করি। মহান আল্লাহ আমাদের সহায় হোন। আমিন।

নবীগঞ্জে বাউশা ইউনিয়নের দাশের কোনা গ্রামের ছরকুম উল্লার পুত্র কমরু মিয়ার বিরুদ্ধে রাস্তায় চলা চলের বাধা দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে।এ ঘটনায় নবীগঞ্জ উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) বরাবরে দাশের কোনা গ্রামের ১৭টি পরিবারের লোকজন লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন। অভিযোগ সূত্রে জানাযায়,উল্লেখিত গ্রামের কমরু মিয়া ১৯৯৬ সনে সফাত উল্লার কাছে রেজেসষ্টারী মূলে বিক্রি করেন।পরে এই জায়গা কৌশলে তার নামে রেকড করেন।গত কিছুদিন পূর্বে দাশের কোনা গ্রামের লোকজন তার বাড়ির সামনের রাস্তা দিয়ে চলা চল করতে গেলে তিনি বাধা প্রদান করেন।গ্রামবাসী তার বাধা দেওয়ার কারন জানতে চাইলে তিনি বলেন এই রাস্তার জায়গা আমার মালিকানা সম্পত্তি ওই রাস্তা দিয়ে আর কেউ চলা চল করতে পারবেনা ।গ্রাম্য সালিশে বিচারকগন বলেন দাশের কোনা মৌজার জে এল নং আর এস খতিয়ান ৭২,১০৬ গং আর এস দাগ নং ২৬০,২৬১,১৮১ শ্রেনী রাস্তা ও গোপাট ছাড়া ।ওই রেকডটিয় রাস্তা দিয়ে গ্রামের পূর্ব পুরুষরা চলাচল করেছিল।তারই ধারাবাহিকতায় এখনের প্রজন্ম চলাচল করছে। রাস্তা দিয়ে চলাচল আর কোন বাধা  না দেয়ার রায় হয় গ্রাম্য বিচারের। রায় অমান্য করে কমরু মিয়া চলাচলে বাধা সৃষ্টি করেই আসছেন। এ ঘটনায় গ্রামবাসীর পক্ষে ১৭টি পরিবারের লোকজন নবীগঞ্জ উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) নিকট লিখিত অভিযোগ দাখিল করেন। সহকারী কমিশনার ভূমি উত্তম কুমার দাশ বলেন ঘটনা সত্য প্রমান হলে আইননুক ব্যবস্থা নেওয়া হবে।  

নবীগঞ্জ-বাহুবলের সাবেক সংসদ সদস্য শেখ সুজাত মিয়ার উদ্যোগে সাবেক প্রধানমন্ত্রী বিএনপি চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়া ও ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানের রোগমুক্তি কামনায় এক বিশাল ইফতার ও দোয়া মাহফিলের আয়োজন করা হয়। ইফতার মাহফিলে মঙ্গলবার শরিক হন বিএনপির কেন্দ্রীয় সমবায় বিষয়ক সম্পাদক আলহাজ্ব জি কে গউছ,হবিগঞ্জ উপজলা বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম আহব্বায়ক আজিজুর রহমান কাজল,জেলা যুবদলের সাধারণ সম্পাদক মোঃ জালাল আহমদ,বিএনপি নেতা দীঘলবাক ইউপি চেয়ারম্যান ছালিক মিয়া,বাউশা ইউপি চেয়ারম্যান সাদিকুর রহমান শিশু,সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান উপজেলা বিএনপির যুগ্ম আহব্বায়ক হাজী আব্দুল মোক্তাদির, যুগ্ম আহব্বায়ক আব্দুল বারিক রনি,বানিয়াচং উপজেলা বিএনপির সিনিয়র  সভাপতি মজিবুর হক মারুফ,সহ সভাপতি মাওলানা মোস্তফা আল হাদী,সাধারন সম্পাদক রকিব ফজলে নাকিব মাখন,উপজেলা বিএনপির নেতা অধ্যাপক নূরুল আমিন,মোরশেদ আহমেদ,মনর উদ্দিন, স্মৃতি ভূষন দাশ,সাহেব সাইফুল রহমান মালিক,পশ্চিম বড় ভাকৈর ইউনিয়নের বিএনপির সাধারণ সম্পাদক রিপন দাশ, সিঃ সহ- সভাপতি লুৎফুর রহমান,যুগ্ম সম্পাদক মুনসুর আলী, সাংগঠনিক সম্পাদ হিফজুর রহমান, সাবেক সভাপতি জয়নাল আবেদিন, পূর্ব ভাকৈর ইউনিয়নের যুগ্ম সম্পাদক আঃ হাদি,আকল মিয়া, যুগ্ম সম্পাদক জাকির হোসেন, কালিজমিয়া, আমজদ আলী, আকল মিয়া, আবু বক্কর, ইনাতগঞ্জ ইউপির সাধারণ সম্পাদক জামাল উদ্দিন,সাংগঠনিক সম্পাদক মেহবুব আহমদ মোশাহিদ, মোস্তফা কামাল, ছেরাক আলী,লালফর মিয়া,এনাম মিয়া,বাচ্চু মিয়া,মালিক মিয়া,জাহান মিয়া,শাহিন মিয়া,এনামুল হক,দীঘলবাক ইউনিয়নের বিএনপি নেতা খলিল মিয়া, জাবের হোসেন লাল,আনহার মিয়া, হাফেজ নুজরুল ইসলাম,সমসু মিয়া,কুরেশ মিয়া, হাজ্বি আমির আলী, আফতাব মিয়া, ইউপি সদস্য রুয়েল মিয়া,শাহিন আহমদ, লেবু মিয়া, লাল মিয়া,আউশকান্দি ইউনিয়নের সাবেক আহবায়ক হাজ্বি আঃ রব, কনর মিয়া,সাংগঠনিক সম্পাদক জাকির আহমদ,ইউপি সদস্য শাহেল আহমদ, ইউপি সদস্য সুমন মিয়া, নুর উদ্দিন,রুয়েল মিয়া,শহিদুল ইসলাম, নুর উদ্দিন,আঃ খালিক, এহিয়া চৌধুরী জাবু, রকি পারভেজ, ইসরাইল মিয়া,কুর্শি ইউনিয়নের সহ সভাপতি হাজ্বি হাসিব উল্লাহ,সাংগঠনিক সম্পাদক আবু বক্কর তালুকদার, জাবেদ আহমদ লাল,আঃ মালেক, আতাউর মিয়া, করগাও ইউনিয়নের আব্দুল কাইয়ুম, আশিক মিয়া, আলাউদ্দিন মিয়া, সামসু মিয়া,মুজিবুর রহমান মুজিব, সিরাজুল ইসলাম, আকাশ মিয়া, আদম আলী, আকমত আলী,সদর ইউনিয়নের সভাপতি এনাম উদ্দিন,সাবেক সাধারন সম্পাদক জিল্লুর নুর,সহ সভাপতি হারুন মিয়া মেম্বার, সাংগঠনিক সম্পাদক হারুন মিয়া, লালু মিয়া,যুগ্ম সম্পাদক সবুর মিয়া, আবুল মিয়া, ইউপি সদস্য শাহিনুর,বাউসা ইউনিয়নের সিঃ সহ- সভাপতি আলেক মিয়া, কাওসার মিয়া, আঃ রউপ মাষ্টার, সাংগঠনিক সম্পাদক বাসিতুর রহমান রুয়েল, যুগ্ম সম্পাদক ডাঃসুজিত দাশ, আব্দুল আউয়াল, দেবপাড়া  ইউনিয়নের  সহ- সভাপতি মুহিব খান, যুগ্ম সম্পাদক ময়নুল ইসলাম, বাচ্চু, জহির  আলম, রফিক মিয়া, আব্দুল কাইয়ুম,গজনাইপুর ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক আবুল খায়ের কায়েদ, সিঃসহ সভাপতি কাওসার আহমদ তালুকদার, আমিনুর রহমান এলাইছ, ময়না মিয়া, কালিয়াভাঙ্গা ইউনিয়নের  সাবেক সভাপতি কামরুজ্জামান, সাবেক সাধারন সম্পাদক আঃ মালেক ধুলা, সাংগঠনিক সম্পাদক  আঃ মন্নান,আবুল ফজল, বাচ্চু মিয়া, তবারক আলী,আব্দুল মিয়া, মুজিবুর রহমান,সমশের উদ্দিন, ফজলু মিয়া, ছাবু মিয়া, পানিউমদা ইউনিয়নের সহ- সভাপতি আবু মূসা চৌধুরী, তইবুর রহমান, ইউপি সদস্য খায়রুল ইসলাম, আঃ মালিক, তজম্মুল মিয়া, উজ্জল মিয়া, নুরুল ইসলাম, বাবুল মিয়া, আবুল কালাম, হাফিজুর মিয়া,অকাব আলী,  তোকান মিয়া, আব্দুর নুর,জিতু মিয়া সেন্টু,জেলা যুবদলের আইন বিষয়ক সম্পাদক এড: জসিম উদ্দিন সদস্য নুরুল আমিনজেলা ছাত্রদলের সিনিয়র যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক হাফিজুর রহমান,জেলা যুবদল নেতা সাদিকুর রহমান লিটন,শামীম আহমেদ,আক্তার হোসেন,পৌর যুবদলের আহবায়ক মোঃ আলমগীর মিয়া, উপজেলা যুবদল নেতা শাহেদুল ইসলাম চৌধুরী রিপন,অলিউর রহমান অলি,জয়নাল আবেদীন,আল-আমিন,আবুল কালাম মিঠু,রায়হান বারী, উপজেলা যুবদলের যুগ্ম আহবায়ক আলীনুর পাশা,সেচ্ছাসেবকদলের সিনিয়র যুগ্ম শাহ রুয়েল আহমদ, যুগ্ম আহবায়ক শহিদলু ইসলাম, ছাত্রদলের আহবায়ক রশিদুল ইসলাম,সাহেল আহমেদ,জাকির হোসেন চৌধুরী প্রমুখ। নবীগঞ্জ উপজেলার বিভিন্ন ইউনিয়নের লোকজন ও এলাকার মুরুব্বী,যুবকসহ বিভিন্ন শ্রেণী পোশার প্রায় ৪ হাজারের অধিক লোকজন দোয়া ও ইফতার মাহফিলে অংশ গ্রহণ করেন। সভায় প্রধান অতিথি আলহাজ্ব জি কে গউছ বলেন বর্তমানে দেশের জনগণ কঠিন অবস্থা অতিক্রম করছে। দেশে শান্তি ফিরে আনতে অবৈধ সরকারকে আন্দোলনের মাধ্যমে বিদায় করতে হবে।আন্দোলনের ক্ষেত্র তৈরি হয়ে গেছে শুধু ডাকের অপেক্ষা।আশাকরি ঈদের পরেই সরকার হটাও আন্দোলনের কঠিন কর্মসূচি আসবে।এ সময় নবীগঞ্জ-বাহুবলের সাবেক সংসদ সদস্য শেখ সুজাত মিয়া তার আমন্ত্রণে আগত দলীয় নেতা কর্মীদের প্রতি ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন ।

হবিগঞ্জ জেলার নবীগঞ্জ উপজলায় মুজিববর্ষ উপলক্ষ ততীয় পর্যায় ভূমিহীন ও গৃহহীন ৩০৫টি পরিবারের মধ্যে প্রধানমন্ত্রীর ঈদ উপহার হিসেবে ঘর ও জায়গার কাগজ হস্তান্তর করা হয়েছে। গতকাল মঙ্গলবার সকাল সারাদেশের ন্যায় গণভবন থেকে অনুষ্ঠানিক ভাবে ঘর হস্তান্তর প্রক্রিয়ার উদ্বাধন করন প্রধানমন্ত্রী চেখ হাসিনা। নবীগঞ্জ উপজলার বাগাউড়া গ্রামে মুজিব পল্লীত ১৬১টি, আলমপুর গ্রামে জয়বাংলা পল্লীত ৪৬টি, ইনাতগঞ্জ মুজিব স্বপ পল্লীতে ৩৭টি, বাউসা গ্রামে বঙ্গঁমাতা পল্লীতে ৫৩টি, বৈঠাখাল গ্রামে মুজিব স্বপলোক ৮টি ঘর অসহায় ভূমিহীন সুবিধাভাগীদের মধ্যে হস্তাÍর করা হয়। এ সময় উপজলা পজিব কর্মকর্তা শাকিল আহমদ এর পরিচালনায় নবীগঞ্জ উপজলা অডিটারিয়ামে অনলাইনে যুক্ত হয়ে এতে বক্তব্যে রাখন, হবিগঞ্জ-১ আসনের সংসদ সদস্য গাজী মোহাম্মদ শাহনওয়াজ মিলাদ। এতে বিশেষ অতিথি ছিলেন- হবিগঞ্জের অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক মিটু চৌধুরী, নবীগঞ্জ উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ফজলুল হক চৌধুরী সেলিম, নবীগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শেখ মহিউদ্দিন, ভাইস চেয়ারম্যান গতি গোবিন্দ দাশ, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান নাজমা বগম, নবীগঞ্জ থানার ওসি (তদন্ত) আমিনুল ইসলাম, নবীগঞ্জ উপজলা আওয়ামী লীগর ভারপ্রাপ্ত সভাপতি গিয়াস উদ্দিন, সাধারণ সম্পাদক সাইফুল জাহান চৌধুরী, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক কাজী ওবায়দুল কাদের হলাল, সাংগঠনিক সম্পাদক মোস্তাক আহমদ মিলু, নবীগঞ্জ প্রসক্লাবের সভাপতি রাকিল হাসেন, ইউপি চেয়ারম্যান আক্তার হাসেন ছুবা। অনুষ্টানের সার্বিক দায়িত্বে ছিলেন সহকারী কমিশনার( ভূমি) উত্তম কুমার দাশ। অন্যান্যর মধ্য উপস্থিত ছিলন উপজেলা প.প কর্মকর্তা ডাঃ আব্দুস সামাদ, কৃষি কর্মকর্তা একে.এম মাকসুদুল আলম, ডিজিএম আলীবর্ধি খান সুজন, শিক্ষা কর্মকর্তা সাদক হাসন, ইউপি চেয়ারম্যান ইমদাদুর রহমান মুকুল, সৈয়দ খালেদুর রহমান খালেদ, শেখ ছাদিকুর রহমান শিশু, মাঃ দিলাওর হোসেন, হাবিবুর রহমান হাবিব, শাহ রিয়াজ নাদির সুমন,প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি উত্তম কুমার পাল হিমেল, সাবেক সাধারণ সম্পাদক মো: সেলিম তালুকদার, মো: আলমগীর মিয়া, সহ-সভাপতি এম.এ মুহিত, সাবেক সহ-সভাপতি শাহ সুলতান আহমদ, যুগ্ম সম্পাদক তৌহিদ চৌধুরী, সাংবাদিক ছনি চৌধুরী, উপজলা মহিলা আওয়ামীলীগের সভাপতি দিলারা হোসেন, সাধারণ সম্পাদক শেখ ছইফা রহমান কাকুলী, পৌর সেচ্ছাসেবক লীগর সভাপতি ইকবাল আহমদ বেলাল, উপজলা ছাত্রলীগর সভাপতি শাহ ফয়ছল তালুকদার প্রমুখ। এছাড়া বিভিন্ন রাজনতিক, সামাজিক, সাংবাদিক, সাং¯তিক সংগঠন ও বিভিন ইউনিয়নর জনপ্রতিনিধিবদ। অনলাইনে শাহ নওয়াজ মিলাদ গাজী এমপি বলেন,জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের স্বপ্ন বাস্তবায়নে কাজ করছেন মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। প্রধানমন্ত্রী বলেছিলেন মুজিববর্ষে একজন মানুষ ও ভূমিহীন ও গৃহহীন থাকবেনা। তারই ধারাবাহিকতায় প্রধানমন্ত্রীর ঈদ উপহার হিসেবে অসহায় মানুষের কাছে ভূমি ও গৃহ হস্তান্তর প্রশংসনীয়। এটা একজন মানবতার নেত্রীর পক্ষেই করা সম্ভব। তিনি নবীগঞ্জ - বাহবলবাসীর পক্ষ থেকে প্রধানমন্ত্রীকে ধন্যবাদ জানান।

নবীগঞ্জ উপজেলার কালিয়ার ভাঙ্গা ইউনিয়নের মান্দারকান্দি গ্রামে সন্ত্রাসী হামলার শিকার হয়ে গুরুতর আহত হয়েছেন দৈনিক আমার হবিগঞ্জ পত্রিকার নবীগঞ্জ প্রতিনিধি মোফাজ্জল হোসেন সজীব (৩৫) নামের এই সাংবাদিক৷ তাকে প্রথমে উদ্ধার করে নবীগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যাওয়া হলে কর্মরত চিকিৎসক তার অবস্থার বেগতিক দেখে আশংকাজনক অবস্থায় হবিগঞ্জ সদর আধুনিক হাসপাতালে প্রেরণ করেন৷ জানাযায়, উপজেলার ওই গ্রামের মৃত আব্দুল বারিক এঁর পুত্র মোফাজ্জল হোসেন সজীব তিনি পেশায় একজন সংবাদকর্মী, দৈনিক আমার হবিগঞ্জ পত্রিকার নবীগঞ্জ প্রতিনিধি হিসেবে অতি সুনামের সহিত দায়িত্ব পালন করছেন৷ তিনি তার কর্তব্য কাজ শেষে নবীগঞ্জ শহর থেকে বাড়ী ফেরার পথিমধ্যে গতকাল ২৫ এপ্রিল সোমবার দিবাগত রাত অনুমান সাড়ে ১১টায় পূর্ব শত্রুতার জেরধরে একই গ্রামের মৃত আঃ সাহিদের পুত্র তফজ্জুল ইসলাম ও এনামুল মিলে রাস্তায় ওঁৎ পেতে থাকে ঘটনাস্থলে গ্রামের রাস্তায় সাংবাদিক মোফাজ্জল হোসেন সজীব পৌঁছা মাত্রই তার পথরোধ করে তাকে হত্যার উদ্দেশ্যে দা'রামদা দিয়ে তাকে কুপাতে থাকে, এসময় ভাগ্যক্রমে অন্যান্য পথচারী ও প্রতিবেশীরা সজীবের শোর চিৎকার শোনে তাকে বাঁচাতে এগিয়ে আসলে অস্ত্রধারী সন্ত্রাসীরা পালিয়ে যায়৷ পরে তাকে রক্তাক্ত অবস্থায় উদ্ধার করে তাৎক্ষণিক ভাবে নবীগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যাওয়া হলে উন্নত চিকিৎসার জন্য তাকে হবিগঞ্জ সদর আধুনিক হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়৷ এ খবর মিডিয়ায় ছড়িয়ে পড়লে সংবাদিকদের মধ্যে ক্ষোভ ও নিন্দার ঝড় উঠে৷ হবিগঞ্জ সদর আধুনিক হাসপাতালে সাংবাদিক সজীবকে গভীররাতে দেখতে যান নবীগঞ্জ ও হবিগঞ্জে কর্মরত সিনিয়র /জুনিয়র অনেক সাংবাদিক নেতৃবৃন্দ ৷ তারা এই সন্ত্রাসী হামলার তীব্র প্রতিবাদ ও নিন্দা জানিয়ে সন্ত্রাসীদের গ্রেফতার পূর্বক কঠোর শাস্তির দাবী জানান৷

  1. LATEST NEWS
  2. Trending
  3. Most Popular