October 7, 2022
নবীগঞ্জের সংবাদ

নবীগঞ্জের সংবাদ (1787)

ভূমি সপ্তাহ উপলক্ষে ভূমি মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে ওসমানী মিলনায়তনে সম্মাননা ক্রেষ্ট ও সার্টিফিকেট গ্রহণ করেছেন নবীগঞ্জ উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) উত্তম কুমার দাশ। জাতীয় ভূমি সেবা সপ্তাহ ২০২২ উপলক্ষে বুধবার ওসমানী স্মৃতি মিলনায়তনে ভূমি মন্ত্রণালয়ের পিএএ সচিব মোস্তাফিজুর রহমানের সভাপতিত্বে এক বর্ণাঢ্য আয়োজনের মাধ্যমে দেশসেরা ৮ জন এসিল্যান্ডকে সম্মাননা প্রদান করা হয়। এর মধ্য সিলেট বিভাগের সেরা সহকারী কমিশনার (ভূমি) হিসেবে নবীগঞ্জ উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) উত্তম কুমার দাশকে ক্রেস্ট এবং সার্টিফিকেট প্রদান করেন অনুষ্টানের প্রধান অতিথি ভূমিমন্ত্রী সাইফুজ্জামান চৌধুরী এমপি। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, ভূমি মন্ত্রণালয়ের সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি মকবুল হোসেন এমপি। অনুষ্টানে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার একটি ভিডিও বার্তা প্রদর্শন করা হয়। নবীগঞ্জ উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) উত্তম কুমার দাশ তার এ অর্জন ও সম্মাননা যাদের কল্যানে সুনিশ্চিত করা হয়েছে জানিয়ে সিলেট বিভাগের বিভাগীয় কমিশনার, অতিরিক্ত বিভাগীয় কমিশনার (রাজস্ব), হবিগঞ্জ জেলা প্রশাসক ইশরাত জাহান, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক মিন্টু চৌধুরী, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) বিজেন ব্যানার্জীসহ সকল এডিসি এবং নবীগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী অফিসার শেখ মহি উদ্দিনসহ তাহার টিম সকলের প্রতি কৃতজ্ঞতা জ্ঞাপন করেন। বিশেষ করে এ অর্জনে তিনি ভূমি মন্ত্রণালয়ের সচিব, জেলা প্রশাসক ইশরাত জাহান এর প্রতি সন্তোষ প্রকাশ করেন।

নবীগঞ্জ উপজেলার ৩নং ইনাতগঞ্জ ইউনিয়নের বুরহানপুর গ্রামের লন্ডন প্রবাসী হানিফ উল্লার বাড়ির আঙ্গিনা থেকে বিপুল পরিমাণ দেশীয় অস্ত্র উদ্ধার করেছে পুলিশ। জানা যায়-গতকাল সোমবার বিকাল ৩টার দিকে নবীগঞ্জ থানার ওসি (তদন্ত) আমিনুল ইসলামের নেতৃত্বে একদল পুলিশ হানিফ উল্লার বাড়িতে অভিযান চালিয়ে তার বাড়ির আঙ্গিনা থেকে বিপুল পরিমাণ দেশিয় অস্ত্র-সস্ত্র উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসেন। স্থানীয় সূত্রে জানা যায়- বুরহানপুর গ্রামের লন্ডন প্রবাসী হানিফ উল্লা, সাহেদ মিয়া ও তাদের সহযোগী আবুল হোসেন (চঞ্চল), রাহিম মিয়া, বাচ্চু মিয়া, মাহের মিয়া, সাজু মিয়া, আকবর হোসেন গংদের সাথে দীর্ঘদীন ধরে শফিক মিয়া গংদের মামলা-মোকদ্দমা চলে আসছিল। এর জের ধরে বেশ কিছুদিন যাবৎ হানিফ উল্লা গংরা প্রকাশ্যে অস্ত্র মহড়া দিয়ে আসছিল। এতে শরিক মিয়ার পরিবারসহ গ্রামবাসীর মধ্যে আতংক ছড়িয়ে পড়ে। খবর পেয়ে নবীগঞ্জ থানা পুলিশ অভিযান চালিয়ে হানিফ উল্লার বাড়ির আঙ্গিনা থেকে বেশ কিছু দেশিয় অস্ত্র উদ্ধার করে।
এ ব্যাপারে নবীগঞ্জ থানার ওসি ডালিম আহমদের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন-কবরস্থানের সীমানা প্রাচীর নিয়ে উভয়পক্ষের মধ্যে দীর্ঘদীন যাবত মামলা-মোকদ্দমা চলে আসছিল। এরই জের ধরে এলাকায় টানটান উত্তেজনা বিরাজ করছিল। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে দেশিয় অস্ত্র উদ্ধার করে। বর্তমানে পরিস্থিতি স্বাভাবিক রয়েছে।

নবীগঞ্জ উপজেলার বাউশা ইউনিয়নের বাউশা গ্রামে প্রেমের টানে হিন্দু সম্প্রদায়ের চাচাতো ভাই বোনের পলায়নের অভিযোগ পাওয়া গেছে।গত ১৪ মে রাতে শনিবার  নিজ গৃহ থেকে তারা পলায়ন করেন।এ নিয়ে এলাকায় সমালোচনার ঝড় বইছে।  স্থানীয়  ও পুলিশ সূত্রে জানা যায়,নবীগঞ্জ উপজেলার বাউশা ইউনিয়নের বাউশা গ্রামের সুকাই সূত্র ধরের ছেলে সুবিনয় সূত্রধর ও অরুন সূত্রধর ( ঝটাই) এর মেয়ে জলি সূত্রধর প্রেমের টানে একে অপরের হাত ধরে বাড়ি থেকে পলায়ন করে। একে অপরের সাথে রক্তের সম্পর্ক তারা একে অপরের চাচাতো ভাই বোন। রক্তের লোকজনের সাথে বিয়ের বন্ধনে আবদ্ধ হওয়া পাপ বলে মনে করেন হিন্দু সম্প্রদায়ের লোকজন।  কয়েক দিন পূর্বে প্রেমিক যুগল কোর্টে মাধ্যমে  বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হন। বিয়ের বিষয়টি তাদের পরিবারের লোকজন জানতে পেরে গ্রাম্য মুরুব্বিদের বিষয়টি মেয়ের বাবা অবগত করেন। গ্রাম্য মুরুব্বিয়ান ২ দিনের ভিতরে বিষয়টি নিষ্পত্তি করবেন বলে আশ্বাস দেন। ২ দিন অতিবাহিত হওয়ায় মেয়ের বাবা নবীগঞ্জ থানায় একটি অভিযোগ  দায়ের করেন।অভিযোগ তদন্তকারী কর্মকর্তা  সাব ইন্সপেক্টর সম্রাট জানান  প্রেমের টানে প্রেমিক যুগল  বাড়ীতে চলে গেছে খবর পেয়েছি তারা নাকি বিবাহ করে ফেলেছে।  

নবীগঞ্জে কুশিয়ারা নদীর পানি বৃদ্ধি পাওয়ায় নদীর তীরবর্তী বেশ কয়েক’টি এলাকা প্লাবিত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে। উপজেলার দীঘলবাক ইউনিয়নের ৫নং ওয়ার্ডস্থ গালিমপুর বাজারে হাটুপানি, মাধবপুর-গালিমপুর গ্রামের সিংহভাগ বাড়িঘরে পানি উঠেছে। এছাড়া আরও কয়েকটি এলাকায় নদীর পানি প্রবেশ করেছে। পানি বৃদ্ধি পেলে কুশিয়ারা ডাইক ঝুকিঁপুর্ণ হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। এই খবর পেয়ে রাতেই ঘটনাস্থলে ছুটে যান নবীগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী অফিসার শেখ মহি উদ্দিন। তিনি স্থানীয় চেয়ারম্যান, মেম্বারসহ গ্রামবাসীকে নিয়ে প্লাবিত এলাকা পরিদর্শন করেছেন। এ সময় তিনি রাধাপুর বাধঁ পরিদর্শনের পাশাপাশি সংশ্লিষ্ট সকলকে প্রটেকশন দিতে অবগত করেন। এ সময় পানি উন্নয়ন বোর্ডকে রবিবার থেকেই বাধেঁ কাজ শুরু করার অনুরোধ করেন। নির্বাহী অফিসার রাতে বাধঁ পাহারা ও তাৎক্ষনিক কোন সংবাদ থাকলে ইউএনও কার্যালয়ে জানানোর জন্য ব্যবস্থা করেন। এ সময় তিনি বলেন, নবীগঞ্জের প্রায় সকল ডাইক (বাধেঁর) ৩ ফুট পানি বৃদ্ধি পেলে পানি উপচে আসার সম্ভাবনা রয়েছে বলে আশংঙ্কা করছেন। স্থানীয়রা জানান, কুশিয়ারা নদীর পানি ব্যাপক হারে বৃদ্ধি পাচ্ছে। ফলে নদীর তীরবর্তী মথুড়াপুর, আহমদপুর, জামারগাওঁ পয়েন্ট, গালিমপুর ও মাধবপুর এলাকা প্লাবিত হয়েছে। মথুড়াপুর গ্রামের মকছুদ মিয়ার ঘরের ভিতরে পানি প্রবেশ করেছে। গালিমপুর বাজারে হাটু পানি রয়েছে। এছাড়া মাধবপুর-গালিমপুর এলাকায় শতকারা ৮০ ভাগ মানুষের বাড়িঘরে পানি ঢুকে পড়েছে বলে জানিয়েছেন ওয়ার্ড মেম্বার আকুল মিয়া।

নবীগঞ্জে পিতা মাতাকে নেশার টাকার জন্য চরম অপমান ও শারীরিক আঘাত ও নির্যাতন করার দায়ে পুত্রকে ১ বছরের বিনাশ্রম কারাদন্ড দেন ভ্রাম্যমাণ আদালত।গতকাল শুক্রবার বিকেলে মোবাইল কোর্টের মাধ্যমে উপজেলার গজনাইপুর ইউনিয়নের সাতাইহাল হায়দরঘাট গ্রামের সাজিদ মিয়ার পুত্র মানিক মিয়া (২৫) কে মোবাইল কোর্টের (দন্ড বিধি ১৮৬০ এর ৩৫৫ ধারার অপরাধ) মাধ্যমে ১ বছরের বিনাশ্রম কারাদন্ড প্রদান করা হয়। নেশার টাকার জন্য চরম অপমান ও শারীরিক আঘাত, বাড়ি ঘর ভাঙচুর ইত্যাদি নিয়মিত অপরাধে পিতা ও মাতার অভিযোগের প্রেক্ষিতে নবীগঞ্জ উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) উত্তম কুমার দাশ মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করেন। ছেলেটির এহন আচরণে গ্রামবাসী ও অবগত ছিল এবং ব্যাপক অভিযোগ পাওয়া যায়। প্রসিকিউশকন এবং আসামি ধরতে সহায়তা করেন নবীগঞ্জ থানার একদল পুলিশ। মোবাইল কোর্টের সত্যতা নিশ্চিত করেন নবীগঞ্জ উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) উত্তম কুমার দাশ।

প্রান্তিক মানুষকে ভূমি বিষয়ে সচেতন করতে নবীগঞ্জ উপজেলা ভূমি অফিসের উদ্যোগে ভুমি সপ্তাহ উদযাপন করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার সকালে নবীগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কড়মকর্তা শেখ মহিউদ্দিন এ সপ্তাহের উদ্বোধন করেন। উপজেলা নির্বাহী অফিসার শেখ মহিউদ্দিনের সভাপতিত্বে ভূমি সপ্তাহ উপলক্ষে উপস্থিত থেকে বক্তব্যে রাখে উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার মোঃ ছাদেক হোসেন, উপজেলা শিক্ষা অফিসার কাজী সাইফুল ইসলাম, উপজেলা মৎস্য অফিসার মোঃ আসাদ উল্লাহ, উপজেলা মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা নুসরাত ফেরদৌসী, উপজেলা প্রকল্প কর্মকর্তা, সাকিল আহমেদ, সহকারী প্রোগ্রামার কাজী মইনুল হোসেন, ইউপি চেয়ারম্যান ইমদাদুল হক চৌধুরী প্রমূখ। সেবা সপ্তাহে প্রান্তিক মানুষের মাঝে ভূমি বিষয়ক বিভিন্ন সচেতনতামুলক দিক নিদর্শন তুলে ধরে বক্তারা বলেন মানুষ যাতে নিজের জমি নিজে বুঝে দেখভাল করতে পারে সেই শিক্ষা দেয়াই ভূমি সপ্তাহের মুল লক্ষ্য।

নবীগঞ্জ পৌর এলাকার সালামত পুরের বাসিন্দা তারেক মিয়া ষড়যন্ত্র মূলকভাবে ইয়াবা দিয়ে ফাঁসানোর প্রতিবাদে নবীগঞ্জ পৌর এলাকার সালামতপুর গ্রামবাসীর উদ্যোগে এক বিশাল মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়েছে। মঙ্গলবার সকাল সাড়ে ১১টায় নবীগঞ্জ পৌর এলাকার সালামতপুর এলাকার সচেতনমহল কর্তৃক আয়োজিত মানববন্ধনে আমির হোসেনের সঞ্চালনায় উপস্থিত ছিলেন, পৌর কাউন্সিলর কবির মিয়া,সাবেক কাউন্সিলর রুহুল আমিন, নিয়াওর মিয়া, কাইয়ুম মিয়া,ওয়াহিদ মিয়া,মুহিন মিয়া,নুনু মিয়া শিকন্দর মিয়া, রেজ্জাক মিয়া, করিম মিয়া,কালাম মিয়া, রায়হান মিয়া, কামান্ডো খালিক, রুয়েল মিয়া, এহিয়া খান, তালুকদার মিয়া, বেনু মিয়া,আফিল উদ্দিন, আবজল, কাজল মিয়া,অজুদ মিয়া, সুলেমান মিয়া,হেলাল আহমদ,হুমায়ুন খান, খালেদ আহমদ,মিঠন মিয়া রাশেদ মিয়া,আলমগীর মিয়া শিপন মিয়া,জাবেদ মিয়া, জাকারিয়া আহমদ,আজাদ,শাহেদ  আলী,লিটন মিয়া,শিপন,হোসেন মিয়া,রাজু আহমেদ,জুবেদ,আহমদ, মতলিব মিয়া, শাহিন আহমদ,আক্কল মিয়া,সানু মিয়া,নুরুল,সোহাগ,সাবলু,রাসেল,পাপ্পু,মামুন,রিপন আহমদ,শিপন,শাহ জামাল, নুরুল আমিন,চুনু মিয়া, শুভ, কাদির,সোহাগ,নয়ন,শান্ত,সাজু,ইউনুস আলী,ইয়াছিন,প্রমুখ। উল্লেখ্য গত  সোমবার দুপুরে  শেরপুর রোডের সালামতপুর এলাকায় তারেক মিয়ার লন্ডন প্রবাসী দুলা ভাই মৃত হাজ্বি সিদ্দেক মিয়ার বাসায় কেয়ারটেকার ছিলেন। কিছুদিন পূর্বে সিদ্দেক মিয়ার প্রবাসী ৩ ছেলের  মধ্যে ওই বাসা নিয়ে বিরোধ দেখা দেয়। এরই জের ধরে  তাকে এই মিথ্যা মাদক মামলা ফাসানো হয়েছে বলে দাবি সচেতন মহলের। বক্তরা বলেন তারেক মিয়া সালামতপুর এলাকায় দীর্ঘদিন ধরে পরিবার নিয়ে বসবাস করে আসছে। তিনি  মাদক  ব্যবসা বা সেবন কারী নয় সে একজন ভালো মনের মানুষ হিসাবে আমাদের  এলাকায় পরিচিত। তাকে মিথ্যা সাজানো ইয়াবা দিয়ে ফাসানোর ঘটনায় তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিছেন বক্তরা। বক্তরা আরো বলেন উক্ত নাটকীয় সাজানো মাদক মামলা থেকে তারেক মিয়ার মুক্তির দাবি জানান।

ঢাকা-সিলেট মহাসড়কের নবীগঞ্জ উপজেলার পানিউমদা ইউনিয়নের রোকনপুর নামক স্থানে বাস সিএনজির মুখোমুখি সংঘর্ষে ২জন নিহত হয়েছে।মঙ্গলবার দুপুরে এই মর্মান্তিক সড়ক দুর্ঘটনাটি ঘটে।হাইওয়ে পুলিশ সূত্রে জানা যায়  উল্লখিত স্থানে ঢাকা গামী বাস এম আর পরিবহন  (ঢাকা মেট্রোঃ ব- ১৫ -৭৫৫১) ধাক্কায় সিএনজি (মৌলভীবাজার থ ১১-৪৮৬৫)থাকা চালক রোকনপুর গ্রামের জহুর আলীর পুত্র আরশ আলী (৩৫) ও যাত্রী একই গ্রামের মৃত গোলাপ আলীর স্ত্রী নুরাইয়া (৪০) নিহত হন।দুর্ঘটনার বিষয়টি নিশ্চিত করে শেরপুর হাইওয়ে থানার  অফিসার ইনচার্জ পরিমল দেব বলেন,দুর্ঘটনায় কবলিত গাড়িটি আটক করে শেরপুর হাইওয়ে থানায় নিয়ে আসা হয়।

সিলেট-ঢাকা মহাসড়কের নবীগঞ্জ উপজেলার গজনাইপুর ইউনিয়নের মুশকিল হাসান মাজার নামক সড়ক দুর্ঘটনায়  ফাহিম আহমদ (২৫)  নামের এক যুবক নিহত হয়েছে৷ সোমবার দুপুরে মর্মান্তিক দুর্ঘটনাটি ঘটে। অপর একজন আহত হয়েছেন। হাইওয়ে পুলিশ সূত্রে জানা যায় উল্লখিত স্থানে সিলেট গ্রামী একটি মালবাহী ট্রাক (ঢাকা মেট্রা -ট ১২-০৩১৪) ধাক্কায় ধান মাড়াই কাজের নিয়জিত হারভেস্টার গাড়ির চালক গজনাইপুর ইউনিয়নের সাতাইহাল মোাকাম পাড়া গ্রামের সাবেক ইউপি সদস্য চুনু মিয়ার পুত্র ফাহিম আহমেদ নিহত হন।দুর্ঘটনার বিষয়টি নিশ্চিত করে শেরপুর হাইওয়ে থানার অফিসার ইনচার্জ পরিমল দেব বলেন,দুর্ঘটনায় কবলিত গাড়িটি আটক করে শেরপুর হাইওয়ে থানায় নিয়ে আসা হয়।

নবীগঞ্জের ঐতিহ্যবাহী শিক্ষা প্রতিষ্ঠান জে কে সরকারি উচ্চ বিদ্যালয় এর সিনিয়র শিক্ষক এবং আঞ্জুমানে আল ইসলাহ হবিগঞ্জ জেলা শাখার সহ-প্রচার সম্পাদক ও নবীগঞ্জ উপজেলা শাখার সাবেক সভাপতি মাওলানা এম এ সবুরের দাফন সম্পন্ন হয়েছে।
শনিবার (১৪ মে) বাদ জোহর বাজকাশারা হাফিজিয়া মাদরাসা সংলগ্ন মাঠে নামাজের জানাজার পর পারিবারিক কবরস্থানে মরহুমকে দাফন করা হয়।হাজারো জনতার উপস্থিতিতে মরহুম শিক্ষকের জানাজা নামাজে ইমামতি করেন, আল্লামা মুফতি কমরুদ্দিন চৌধুরী সাহেব জাদাহে ফুলতলী শিক্ষক মাওলানা এম এ সবুরকে শেষবারের মতো দেখতে হাজারো জনতা উপস্থিত হয়।এ পর্যায়ে জনস্রোতে পরিণত হয় হাফিজিয়া মাদরাসা সংলগ্ন ময়দান।জানাজায় স্থানীয় আলেমরা ছাড়াও বিভিন্ন অঞ্চল থেকে ছুটে আসেন আলেম ওলামা এবং স্কুলের সাবেক শিক্ষক শিক্ষার্থীরা ও সামাজিক, রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দ।জানাজা পূর্ব বক্তব্যে বক্তারা বলেন, মাওলানা এম এ সবুর সারাজীবন দ্বীনের ওপর অবিচল থেকেছেন। স্কুল ও মাদরাসার ছাত্র-শিক্ষক ও পড়ালেখার উন্নতির জন্য নিরলস পরিশ্রম করেছেন। সর্বদা সুন্নতের অনুসরণ ও তাকওয়াকে অবলম্বন করে জীবন পরিচালনা করেছেন।শুক্রবার দিবাগত রাত ৩টায় সিলেট ইবনে সিনা হাসপাতালে ইন্তেকাল করেন। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৫১ বছর।উল্লেখ্য, মাওলানা এম এ সবুর দীর্ঘদিন যাবত ঐতিহ্যবাহী শিক্ষা প্রতিষ্ঠান নবীগঞ্জ জে কে মডেল উচ্চ বিদ্যালয়ে সিনিয়র শিক্ষক হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন এছাড়া তিনি মৃত্যুর আগে পর্যন্ত বাজকাশারা হাফিজিয়া মাদ্রাসায় দারুন কেরাত চালু করে দায়িত্ব পালন করছেন। এ কারণে দেশ-বিদেশে তার অনেক ছাত্র, ও গুণগ্রাহী রয়েছে। মৃত্যু পর্যন্ত তিনি ইলম ও দ্বীনের বহু খিদমত আঞ্জাম দিয়েছেন।

  1. LATEST NEWS
  2. Trending
  3. Most Popular