October 7, 2022
Saturday, 22 June 2019 13:57

নবীগঞ্জে এক শিক্ষকের বিরোদ্ধে ছাত্রীকে শারীরিক নির্যাতনের অভিযোগ

✍ মোঃ নাবিদ মিয়া, নবীগঞ্জ :
শিক্ষকের  ছাত্রীকে শারীরিক নির্যাতন শিক্ষকের ছাত্রীকে শারীরিক নির্যাতন ফাইল ফটো

 নবীগঞ্জে এক শিক্ষকের লঙ্কা কান্ড নিয়ে তোলপাড় চলছে। স্কুলের বেতন দেরিতে দেয়ায় সপ্তম শ্রেণীর ছাত্রীকে মানসিক ও শারীরিকভাবে নির্যাতনের অভিযোগ উঠেছে। শিক্ষকের বিরুদ্ধে।   ঘটনাটি ঘটেছে নবীগঞ্জ পৌরসভার নবীগঞ্জ সরকারি কলেজের স্কুলে।  সরেজমিনে অনুসন্ধানে জানা যায়, নবীগঞ্জ উপজেলার করগাঁও ইউনিয়নের জন্তরী গ্রামের সপ্তম শ্রেণীর জনৈক ছাত্রীর সাথে এ ঘটনা ঘটে। ওই ছাত্রী দরিদ্র পরিবারের হওয়ায় স্কুলের ৪ মাসের বেতন বকেয়া পরে।  পরে চলতি মাসের ১৫ জুন ২ মাসের বেতন স্কুলে নিয়ে গেলে শিক্ষক রাজিব চৌধুরী উত্তেজিত হয়ে ওই ছাত্রীকে বেত আঘাত করেন। বেত আঘাতে ছাত্রীর শরীরে বিভিন্ন অংশে জখম হয়। শুধু এই ছাত্রীতেই থেমে থাকেননি অভিযুক্ত  শিক্ষক রাজিব চৌধুরী। স্কুলে নানা অভিযোগ রয়েছে তার বিরুদ্ধে। অষ্টম শ্রেণীর আরেক ছাত্র মোঃ আলী জানায়, এ বিষয় স্যারের নতুন কিছু না। একটু দেরিতে বেতন দিলেই স্যার ক্ষিপ্ত হন সব সময়। ক্ষিপ্ত হয়ে আমাদের বাবা, মা, কে নিয়ে অকত্য ভাষায় কথা বলেন স্যার।সে আর ও জানায়, পরিবারের কেউ যদি প্রবাসী হন তাহলে তাদের নিয়ে অশুভ কথা বলেন আমাদের স্যার। রাজিব চৌধুরীর এহেন আচরণে ক্ষুদ্ধ স্কুলের অবিবাকরা। স্কুলে বেতনের জন্য ছাত্রছাত্রীর সাথে অশুভ আচরণ বেত্রাঘাত ও মানসিক শারীরিকভাবে নির্যাতন প্রবাসীদের নিয়ে তার কুরুচিপনা বক্তব্য নবীগঞ্জের সুশীল সমাজে মিশ্র প্রক্রিয়া দেখা দিয়েছে।  এদিকে সপ্তম শ্রেণীর ছাত্রীকে বেত আঘাত মানসিক ও শারীরকিভাবে নির্যাতনে স্কুলের সভাপতি নবীগঞ্জ সরকারি কলেজের ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ মোঃ সফর আলীর কাছে লিখিত অভিযোগ করেছেন ছাত্রীর বড় ভাই চন্দন বৈদ্য।  এব্যাপারে অভিযুক্ত রাজিব চৌধুরী বলেন,  আমার বিরুদ্ধে করা এ অভিযোগ মিথ্যা।  স্কুলের সভাপতি নবীগঞ্জ সরকারি কলেজের ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ বলেন, বিষয়টি ক্ষতিয়ে দেখছি। এব্যাপারে জানতে চাইলে নবীগঞ্জ উপজেলা উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার বলেন, বেতনের জন্য ছাত্রছাত্রীর উপর প্রহার করা এক ধরনের বড় অপরাধ। বকেয়া বেতনের জন্য একজন শিক্ষক এমন কাজ করতে পারেন না। ঘটনার সত্যতা পেলে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে বলে জানিয়েছেন তিনি। শিক্ষক হিসেবে রাজিব চৌধুরীর শিক্ষাগত যোগ্যতা নিয়ে ও প্রশ্ন উঠেছে। অসম্পূর্ণ ডিগ্রি দিয়ে কিভাবে একটি হাই স্কুলের শিক্ষকতা করছেন রাজিব চৌধীরী প্রশ্ন অনেকের।   এভাবে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান চলতে পারে না বলে মনে করছেন সচেতন মহল। এজন্য যতদ্রুত সম্ভব শিক্ষক রাজিব চৌধুরীর বিষয় তদন্ত করে আইনানুগভাবে ব্যবস্থা গ্রহণের দাবি  উঠেছে।

Last modified on Saturday, 22 June 2019 18:25
Login to post comments
  1. LATEST NEWS
  2. Trending
  3. Most Popular